ডেস্ক রিপোর্টারঃ চলতি অর্থবছরের মে মাসে মূল্যস্ফীতি কমেছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ হিসাবে দেখা গেছে, মাস ওয়ারি ভিত্তিতে গত মে মাসে মূল্যস্ফীতি ছিল ৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ; যা গত এপ্রিল মাসে ছিল ৫ দশমিক ৬৩ শতাংশ। সোমবার বিবিএস মূল্যস্ফীতির হালনাগাদ চিত্র প্রকাশ করেছে।

হিসাব অনুযায়ী, গত মে মাসে আগের মাসের তুলনায় চাল ও তামাকজাতীয় পণ্যের দাম কমেছে। আর পরিধেয় বস্ত্রাদি, বাড়িভাড়া, চিকিৎসাসেবা, পরিবহন, শিক্ষা উপকরণসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম কমেছে।  মাসওয়ারি ভিত্তিতে মূল্যস্ফীতি হিসাব করে বিবিএস। গত মে মাসে মূল্যস্ফীতি ৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ হওয়ার মানে হলো, ২০১৭ সালের মে মাসে যে পণ্যের দাম ১০০ টাকা ছিল, এ বছর মে মাসে ওই পণ্য কিনতে ভোক্তাকে ১০৫ টাকা ৫৭ পয়সা খরচ করতে হয়েছে।

মে মাসে খাদ্য ও খাদ্যবহির্ভূত—উভয় খাতেই মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। মে মাসে খাদ্য মূল্যস্ফীতি ছিল ৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ। এর আগের মাসে এই হার ছিল ৭ দশমিক ০৩ শতাংশ। অন্যদিকে মে মাসে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল ৪ দশমিক ০৮ শতাংশ। এপ্রিলে এই হার ছিল ৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

অন্যদিকে গ্রামের চেয়ে শহরের মানুষের ওপর মূল্যস্ফীতির চাপ তুলনামূলকভাবে বেশি। মে মাসে শহরে সার্বিক মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ। আর গ্রামে এই হার ৫ দশমিক ০৭ শতাংশ।