মিউচ্যুয়াল ফান্ডকে জনপ্রিয় করতে বিশেষ প্রণোদনার দাবি

0
1478

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন বাজেটে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে মিউচ্যুয়াল ফান্ডকে আরো জনপ্রিয় করতে বিশেষ প্রণোদনার দাবি জানিয়েছে অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিজ (এএমসি)।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিএসইসি কার্যালয়ে রোববার (২৯ নভেম্বর) তালিকাভূক্ত মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর নির্বাহীদের নিয়ে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যানের কাছে এ দাবি তুলে ধরেন সিইওরা।

এর আগে বৈঠকে কমিশনার অধ্যাপক ডক্টর মিজানুর রহমান মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে প্রেজেন্টেশন তুলে ধরেন।

এ সময় সভায় বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, দেশের অর্থনীতি যেভাবে এগুচ্ছে তাতে অর্থনীতির সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে পুঁজিবাজারের ব্যাপ্তি আরো বাড়াতে হবে। আর বাজারের ব্যাপ্তি বাড়াতে হলে মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোকে আর বেশি গ্রহনযোগ্য করে তুলতে হবে। সে লক্ষ্যে আমাদেরকে করণীয় নির্ধারণ করতে হবে।

এরপর বিএসইসির চেয়ারম্যানের কাছে মিচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ নিরাপদ কি না বিষয়টি জানতে চাইলে সিইওদের উদ্দ্যেশে তিনি বলেন, মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট হোল্ডাদের স্বার্থ সংরক্ষণের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। বিশ্বজুড়েই মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ অনেকটাই নিরাপদ। আমাদেরকে সেই বিবেচনায় নিতে হবে। বিনিয়োগকারীদেরকে মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে হবে। তাদের আস্থা ফেরাতে হবে। এছাড়া ফান্ডগুলোর ক্লোজলি মনিটরিং করছি, প্রয়োজনীয় নিরীক্ষা করা হবে বলেও জানান তিনি।

এ সময় এএমসির পক্ষ থেকে আসছে বাজেটে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের জন্য বিশেষ প্রণোদনা রাখার দাবি জানানো হয়। বর্তমানে ওপেন ক্লোজিং মিচুয়াল ফান্ডে ২৫ হাজার টাকা লভ্যাংশের আয়কে করমুক্ত রাখা হয়েছে। এটা বাড়ানোর দাবি জানানো হয়। এছাড়া মিউচ্যুয়াল ফান্ডের আইনগুলোকে আরো আধুনিক করার আহ্বান জানানো হয়।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে ৪৮টি মিউচ্যুয়াল ফান্ড রয়েছে। অধিকাংশ ফান্ডের ইউনিটের দাম ফেসভ্যালুর নিচে রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here