স্টাফ রিপোর্টারঃ হঠাৎ করেই ৩০,১৭৩ বেনিফিশিয়ারি ওনার্স বা বিও হিসাব বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে নবায়ন না করায় বাতিল হয়ে গেছে এসব বেনিফিশিয়ারি ওনার্স বা বিও হিসাব। ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতিতে শেয়ার সংরক্ষণকারী কোম্পানি সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ১৫ই জুন অনুযায়ী বিও হিসাব ছিল ২,৯১,৭২৬ টি যা ৩ই জুলাই দাঁড়ায় ২,৯৪,৮৯৯ এ। অর্থাৎ বিও হিসাব কমেছে ৩০,১৭৩ টি।  অনেক ব্রোকারেজ হাউস এখনও বাতিল বিও’র তালিকা সিডিবিএলে পাঠায়নি। সব তথ্য পেলে এর সংখ্যা দ্বিগুণের বেশি হতে পারে বলে জানা যায় । মূলত আইপিও বা প্রাইমারি মার্কেটে বিশেষ সুবিধা করতে না পারায় এসব হিসাব বন্ধ হয়ে গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

অন্যদিকে , ৩ই জুলাই ২০১৭ শেষে বর্তমানে যে সচল বিও রয়েছে এর মধ্যে সাধারণ বিনিয়োগকারী ২৭ লাখ ৪৬ হাজার ৫৮১টি, প্রবাসী বাংলাদেশীদের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৬৫২টি এবং বিভিন্ন কোম্পানির ১১ হাজার ৪৯৩টি। এদিকে সচল বিও’র মধ্যে পুরুষ বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ২১ লাখ ২২ হাজার ৪৯১টি আর নারীদের বিও রয়েছে ৭ লাখ ৮০ হাজার ৭৪২টি।


প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, বিও নবায়নের শেষ সময় ছিল ৩০ জুন। তবে ব্রোকারেজ হাউসগুলো বিনিয়োগকারীদের ২৫ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিল। এরপরই হাউসগুলো থেকে বিও হিসাব বন্ধের তালিকা পাঠানো শুরু হয়। আর সর্বশেষ হিসাবে দেশের শেয়ারবাজারে মোট বিও হিসাবের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৯ লাখ ১৪ হাজার ৭২৬টি।

তবে উল্লেখ্য যে, যেসব এ্যাকাউন্টে শেয়ার আছে অথবা টাকা জমা আছে, ওই এ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেয়া হয়েছে।