মাইডাস ফিন্যান্সের শেয়ার বিক্রি ঘোষণা ও অন্যান্য

0
359

স্টাফ রিপোর্টার : মাইডাস ফিন্যান্সিং লিমিটেডের উদ্যোক্তা পরিচালক রোকিয়া আফজাল রহমান বিদ্যমান বাজার দরে নিজ কোম্পানির ৩ লাখ শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছেন। কোম্পানিটিতে তার ধারণকৃত শেয়ারের পরিমাণ ৮ লাখ ১১ হাজার ৮০৯টি।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে ঘোষনা অনুযায়ী শেয়ার বিক্রির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন কোম্পানিটির এ উদ্যোক্তা পরিচালক।

এদিকে, সম্প্রতি শেয়ারের অস্বাভাবিক দরবৃদ্ধির নেপথ্যে মূল্য সংবেদনশীল কোন তথ্য নেই বলে জানিয়েছে ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক খাতের কোম্পানিটি। গত ২০ আগস্ট ডিএসই কর্তৃপক্ষের চিঠির জবাবে এ তথ্য দেয় তারা।

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৭ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দেয়ায় স্টক এক্সচেঞ্জে ‘জেড’ থেকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হয়েছে মাইডাস ফিন্যান্সিং। বছর শেষে তাদের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৮১ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ১১ টাকা ৯৮ পয়সায়।

এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১৪ পয়সা। যা এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ৮৯ পয়সা। দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) ২৪ পয়সা শেয়ার প্রতি লোকসান দেখিয়েছে মাইডাস। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৩০ পয়সা। ৩০ জুন ২০১৮ সময়ে কোম্পানিটির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১১ টাকা ৩ পয়সা।

সর্বশেষ এনটিটি রেটিং অনুসারে দীর্ঘমেয়াদে মাইডাস ফিন্যান্সিংয়ের ঋণমান ‘এ’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-টু’। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এ প্রত্যয়ন করেছে ন্যাশনাল ক্রেডিট রেটিংস লিমিটেড (এনসিআর)।

২০০২ সালে তালিকাভুক্ত মাইডাস ফিন্যান্সিংয়ের অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ১৩২ কোটি ২৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা। নিরীক্ষিত রিজার্ভ ১১ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৩৯ দশমিক ৭০ শতাংশ এর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ২৯ দশমিক শূন্য ২ এবং বাকি ৩১ দশমিক ২৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here