সিনিয়র রিপোর্টার : শতভাগ রপ্তানী নির্ভর কোম্পানি ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডের চলতি বছরে মুনাফা বেড়েছে এবং আরো বাড়বে। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত অনেক কোম্পানির মধ্যে ব্যতিক্রম ভিএফএস থ্রেড ডাইং। যার লেনদেনের শুরু থেকে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দর পড়েনি, শুধুই বেড়েছে।

একই সঙ্গে কোম্পানির মুনাফা বাড়ায় প্রথম প্রান্তিকে ইপিএস বেড়ে হয়েছে ০.৫৪ টাকা। যা গত বছরে একই সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় ছিল ০.৩৫ টাকা।

অন্যদিকে কোম্পানির প্রোসপেক্টাস অনুমোদন থেকে ৬ মাস পূর্ণ হওয়ায় উদ্যোক্তাদের লক-ইন শেয়ার ফ্রি হয়েছে ২২ নভেম্বর। এরপরে দ্বিতীয় ধাপে (৯ মাস) আগামী জানুয়ারি মাসের শেষ দিকে আরেক দফা অর্থাৎ কোম্পানির মোট শেয়ারের ২৫ শতাংশ শেয়ার লক-ইন ফ্রি হবে।

প্রথম ধাপে কোম্পানির মোট শেয়ারের অর্ধেক বা বিশাল পরিমাণ শেয়ার লক-ইন ফ্রি হলেও তার প্রভাব শেয়ার দরে পড়েনি।

পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজারে আসা কোম্পানিতে বিনিয়োগ করা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ শেয়ারের ওপর কোনো ধরনের লক-ইন থাকে না। অবশিষ্ট ৫০ শতাংশ শেয়ারের মধ্যে ২৫ শতাংশের ওপর ৬ মাস এবং বাকি ২৫ শতাংশের ওপর ৯ মাসের লক-ইন থাকে। প্রসপেক্টাস ইস্যুর তারিখ থেকে লক-ইন হিসাব করা হয়

কোম্পানির প্রসপেক্টাস ইস্যুর তারিখ থেকে ৬ মাস পূর্ণ হওয়ায় প্রথম ধাপে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ২৫ শতাংশ শেয়ার লক-ইন ফ্রি হয়।

গত এক বছরে দর বৃদ্ধির চিত্রটি ডিএসই থেকে নেয়া

তবে গত ২২ নভেম্বরে বিপুল পরিমাণে শেয়ার ফ্রি হওয়ার পরে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দর আরো বেড়েছে। যা ব্যতিক্রম হিসেবে ধরা হচ্ছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে প্রকাশ, দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দর গত বছরে যে মুহূর্তে পড়েছে তখনও ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেডের দর আরো বেড়েছে।

কোম্পানির প্রধান কার্যালয় বারিধারা ডিওইচএস অফিস সম্প্রতি পরিদর্শনে গেলে দেখা যায়, নতুন সরকারের রাজনৈতিক পরিবেশ স্থিতিশীল হওয়ায় এবং বিভিন্ন পণ্যের গ্রাহকের সমাগম অনেক বেশি। অফিসে প্রত্যেকে নতুন পণ্য এবং ব্যবসা নিয়ে কথা বলছেন। কোম্পানির কর্তৃপক্ষ তাদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে ব্যস্ত সময় পার করছে।

বাণিজ্য সম্পর্কে কোম্পানির সিএফও মি. রাসেল বলেন, কোম্পানির সব কাজ আগের চেয়ে এগিয়ে। নতুন নতুন বাণিজ্যের পখ খোঁজা হচ্ছে। ব্যবসা আরো ভালো করার চেষ্টা চলছে। আমরা প্রথম প্রান্তিকের যে রিপোর্ট প্রকাশ করেছি, তুলনামূলক চিত্র দেখলেই তা স্পষ্ট হবে। তবে আগামীতে আরো ভালো হবে।

কোম্পানির প্রথম প্রান্তিকের হিসাব বিবরণী থেকে নেয়া

কোম্পানির প্রথম প্রান্তিকের চিত্র অনুসারে কর পরবর্তী মুনাফা করেছে ৪ কোটি ৩২ লাখ ৪০ হাজার ৮৩৮ টাকা। এরপূের্বে ২০১৭ সালে মুনাফা হয়েছিল ২ কোটি ২০ লাখ ১১ হাজার ১০৫ টাকা।

নিচে কোম্পানির প্রথম প্রান্তিকের হিসাব বিবরণী দেয়া হলো-

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here