‘ভালো কোম্পানিগুলোকে বাজারে আনার’ তাগিদ দিলেন ড. মশিউর

0
489

ডেস্ক রিপোর্ট : পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করার মতো ভালো স্ক্রিপ্ট নেই বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান। এ কারণে অবসরপ্রাপ্ত লোকজন সঞ্চয় ও ফিক্ট ইনকামে বিনিয়োগ করেন বলেও মনে করে তিনি। এই অবস্থায় তার পরামর্শ, সাধারণ বিনিয়োগকারীদের টানতে হলে বাজারে  ভালো কোম্পানিগুলোকে আনতে হবে।

বুধবার বিশ্ব বিনিয়োগ সপ্তাহ– ২০১৭ উপলক্ষ্যে আয়োজিত মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মশিউর রহমান এমন সব মন্তব্য করেন। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) মেলাটির আয়োজন করেছে।

মশিউর রহমান বলেন, এখন বাজারে বিনিয়োগের মতো ভালো স্ক্রিপ্ট নেই। বিশেষ করে স্বল্প ও মধ্য আয়ের লোকজনের জন্য আস্থাশীল কোম্পানি।

পুঁজিবাজারের ভালো কোম্পানি না থাকায় অবসরপ্রাপ্ত লোকজন সঞ্চয় ও ফিক্সড ইনকামে বিনিয়োগ করেন বলেও মনে করে প্রধানমন্ত্রীর এই অর্থনৈতিক উপদেষ্টা।

তিনি বলেন, দেশে প্রবৃদ্ধি বাড়াতে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। এই বিনিয়োগ বেশি করবে প্রাইভেট খাতের লোকজন। বিনিয়োগের প্রয়োজন মেটাতে পুঁজিবাজারের বিকল্প নেই।

এসময় স্বাগত বক্তব্যে বিএসইসির চেয়াম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বাংলাদেশে যত বড় বড় প্রকল্প চলমান আছে; অর্থবাজার তার জন্য যথেষ্ট না। এর জন্য পুঁজিবাজারকে ব্যবহার করতে হবে। এ বাজারকে ব্যবহার করলেই বাংলাদেশ ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হতে পারবে।

খায়রুল হোসেন বলেন, দুটি বিষয়কে সামনে নিয়ে বিশ্বব্যাপী এই মেলা হচ্ছে। এর একটি হলো বিনিয়োগ শিক্ষা ও সুরক্ষা অন্যটি হলো সব রেগুলেটরদের আইন কানুনের বিষয়ে সকলকে অবগত করা।

তিনি বলেন, ২০১০ সালের ধসের পর বাজারে অনেক সংস্কার হয়েছে। কিন্তু এতে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস আসেনি। এর কারণ খুঁজতে গিয়ে দেখা গেছে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে শিক্ষার অনেক বড় ঘাটতি আছে। এর সমাধানের জন্য আমরা দেশব্যাপী বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করেছি।

তিনি বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে রুপান্তরিত হওয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এ লক্ষ্য পূরণে  বিনিয়োগকারীদের জ্ঞান আরও সানিত করে  বিনিয়োগ করতে হবে।

এসময় বিএসইসি কমিশনার অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন নিজামী, ড. স্বপন কুমার বালা, আমজাদ হোসেনসহ কমিশন ও পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here