বোতলজাত গ্যাসের সরবরাহ বাড়াবে তিতাস

0
745

স্টাফ রিপোর্টার : তরল পেট্রোলিয়াম (এলপি) বা বোতলজাত গ্যাসের সরবরাহ বাড়াবে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। এজন্য সরকারিভাবে মংলা ও চট্টগ্রামে কার্যক্রম চলছে বলে জানিয়েছেন কোম্পানির চেয়ারম্যান ও জ্বালানি সচিব আবুবকর সিদ্দিক।

মঙ্গলবার রাজধানীর বেইলী রোডে অফিসার্স ক্লাবে কোম্পানিটির ৩৩তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

কোম্পানির চেয়ারম্যান বলেন, সরকার দেশের গ্যাসের চাহিদাকে সামনে রেখে আগামী ৩ বছরে এলপি গ্যাসের সরবরাহ বৃদ্ধি করবে। এর মাধ্যমে গ্রামের মানুষের মাঝে জ্বালানী পৌঁছানো সম্ভব হবে।

তিনি বলেন, এখন গ্যাসের চাহিদা প্রায় ৫ লাখ মেট্রিক টন। তবে এর বিপরীতে সরকারি ও বেসরকারিভাবে ১ লাখ টন উৎপাদিত হয়ে থাকে। আবার নতুন গ্যাস সংযোগের জন্য যে পরিমাণ অর্থ ব্যয় হয় তার শতভাগের একভাগও বিল পাওয়া যায় না। তাই সরকারের পক্ষ থেকে এমন সিদ্ধান্ত হচ্ছে যে, আমরা এখন এলপি গ্যাসের দিকে যাব। বাসা-বাড়িতে যে সংযোগ রয়েছে তা বহাল রেখে নতুন করে আর সংযোগ দেওয়া হবে না বলেও জানান কোম্পানির চেয়ারম্যান।

জ্বালানি সচিব বলেন, এলপি গ্যাসের জন্য সরকারিভাবে মংলাতে ১ লাখ মেট্রিক টনের জন্য প্রকল্পের কাজ চলছে। চট্টগ্রামের কুমিরাতে সরকারি ও বেসরকারি অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে(পিপিপি) আরও একটি প্রকল্পের জন্য জায়গা নির্বাচন করা হয়েছে। এছাড়া বেসরকারিভাবে যারা আসছেন তাদেরও এলপি উৎপাদনে অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা কোনো অবৈধ সংযোগ রাখতে চাই না। আগামীতে অবৈধ সংযোগ স্থাপনকারীদের শাস্তির আওতায় আনা হবে। একই সঙ্গে ৪০ বছরের পুরানো পাইপলাইনের পরিবর্তনও করা হবে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে আলী আকবর মিয়া নামে এক বিনিয়োগকারী বলেন, অবৈধ গ্যাস সংযোগের কারণে বহু এলাকায় মানুষ সংযোগ থাকার পরেও গ্যাস পাচ্ছে না। বিপুল পরিমাণে অবৈধ সংযোগ থাকার কারণে বিনিয়োগকারী হিসাবে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। এখনও তিতাসের ৩৬ হাজার ৫৩৩টি অবৈধ সংযোগ রয়েছে। এর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কোম্পানির পরিচালক আব্দুল মালেক, ইসতিয়াক আহমেদ, মোহাম্মদ ইকবাল, আব্দুহু রুহুল্লাহ, আক্তার হোসেন, লেয়াকত আলী ভূইয়া প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here