বেসিক ব্যাংক: `এমডির পদত্যাগে সংকট হবে না’

0
73

সিনিয়র রিপোর্টার : সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুর দুর্নীতি আর ঋণ কেলেঙ্কারিতে ধুঁকছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বেসিক ব্যাংক। পর্ষদ ভেঙে নতুন করে পুনর্গঠন হলেও অবস্থার উন্নতি হয়নি আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির। ব্যাংকটিতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ বেড়েই চলেছে। দিনদিন বাড়ছে লোকসানের পাল্লা।

উন্নয়ন সূচকে নেই অগ্রগতি। এসবের মধ্যে নতুন করে শুরু হয়েছে ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক ব্যবস্থাপনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে অযাচিত হস্তক্ষেপ। যা ইতোমধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে। যার ফলে পদত্যাগ করেছেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মুহাম্মদ আউয়াল খান।

এদিকে, এমডি আউয়াল খানের পদত্যাগে বেসিক ব্যাংক নতুন করে সংকটে পড়বে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

বেসিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মুহাম্মদ আউয়াল খান গত ১৪ আগস্ট পদত্যাগ করেন। পদত্যাগপত্রে তিনি শারীরিক অসুস্থতা ও ব্যক্তিগত বিষয়ের কথা উল্লেখ করেন। ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ঋণ অনুমোদন, কিছু ঋণ পুনঃতফসিলের মতো ব্যাংক ব্যবস্থাপনার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে ঐকমত্যে পৌঁছাতে না পেরে তিনি পদত্যাগ করেছেন।

অপর সূত্রের দাবি, সুদহার কমে যাওয়া, খেলাপি ঋণ বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন কারণে চলতি বছর বেসিক ব্যাংক ৮০-৯০ কোটি টাকা লোকসান করবে। এমন পরিস্থিতি বুঝেই সমালোচনা এড়াতে আগেভাগেই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্যাংকের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন এ মজিদ জানান, এমডির পদত্যাগপত্র পেয়েছি। আগামী ৩০ আগস্ট পরিচালনা পর্ষদের সভায় বিষয়টি উপস্থাপিত হবে।

আলাউদ্দিন এ মজিদ বলেন, বোর্ড চাইলে তিনি থাকবেন, না চাইলে থাকবেন না। এ বিষয়ে পর্ষদ সদস্যরাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। পর্ষদের চাপে এমডি পদত্যাগ করেছেন কি না- জানতে চাইলে বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান বলেন, পর্ষদের চাপ ছিল না। উনি ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করেছেন।

এদিকে, এমডি আউয়াল খানের পদত্যাগে বেসিক ব্যাংক নতুন করে সংকটে পড়বে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি। এমনিতেই সেখানে সমস্যা রয়েছে, এর মধ্যে এমডির পদত্যাগে একটা নেগেটিভ বার্তা আসছে কি না- জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, না পদত্যাগের জন্য ব্যাংকটির কোনো সমস্যা হবে না। পদত্যাগের বিষয়টি অপ্রাসঙ্গিক। এতে আমি মোটেও বিচলিত নই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here