‘বিনিয়োগকারীর স্বার্থ বিঘ্নিত হবে না’

0
435

স্টাফ রিপোর্টার : বিনিয়োগকারী ও স্টেক হোল্ডারদের স্বার্থ বিসর্জন দেওয়া হবে না।  বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষার্থে সব করা হবে। কোনোভাবেই বিনিয়োগকারী এবং স্টেকহোল্ডারদের স্বার্থ বিসর্জন দেওয়া হবে না।  বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন এসব কথা বলেন।

কারওয়ান বাজারে একটি হোটেলে পুঁজিবাজার সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণমূলক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, বিনিয়োগকারী এবং স্টেক হোল্ডারদের স্বার্থে  যা যা করার দরকার তার সবই করব।

পুঁজিবাজার সাংবাদিকদের নিয়ে মসলিন ক্যাপিটাল এবং ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরাম (সিএমজেএফ) যৌথভাবে এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে খায়রুল হোসেন বলেন, বিএসইসি বিগত কয়েক বছরে পুঁজিবাজারকে স্থিতিশীল ও আইনগতকাঠামো শক্তিশালী করতে অনেক আইন প্রনয়ন করা হয়েছে। এর ফলে বিনিয়োগকারীসহ স্টেকহোল্ডাররা স্বার্থ রক্ষা সুদৃঢ় হয়েছে।

ভেঞ্চার ক্যাপিটাল নিয়ে তিনি বলেন, পুঁজিবাজার বিকাশে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অন্যতম একটি প্রোডাক্ট। এর মাধ্যমে নতুন উদ্যোক্তাদের আইডিয়াকে বাস্তবে রূপদান করা সম্ভব। আমেরিকাতে ফেসবুক, জেরক্স, ইনটেলের মতো কোম্পানি খ্যাতি অর্জন করেছে এই ভেঞ্চার ক্যাপিটালের মাধ্যমে। বাংলাদেশে এই ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রাইভেট ইকুইটি এবং ইমপ্যাক্ট ফান্ড নিয়ে অনেক কাজ শুরু হয়েছে। এর মাধ্যমে পুঁজিবাজার অনেক এগিয়ে যাবে বলে মনে করেন তিনি।

মসলিন ক্যাপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়ালি-উল-মারূফ মতিন অলটারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

এসময় তিনি চতুর্থ প্রজন্মের ব্যবসা সম্পর্কে ধারণা প্রদান করেন। ভেঞ্চার ক্যাপিটালের মাধ্যমে ব্যবসা করে সফল কোম্পানিগুলোর ধারণা তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরামের (সিএমজেএফ) সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের বিনিয়োগ নিরাপদ রাখতে সাংবাদিকদের পেশাগত জ্ঞান অর্জন জরুরি। আমাদের বাজার এখন আন্তজাতিক মানে চলে যাচ্ছে। এখানে বিদেশি কৌশলগত বিনিয়োগ আসছে। তাই পুঁজিবাজার সম্পর্কে প্রশিক্ষণ পেশাগত দায়িত্ব পালনে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন তিনি।

দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় পুঁজিবাজারের সাংবাদিকরা অংশগ্রহণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here