বিনিয়োগকারীদের আশ্বস্ত করে শঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

0
1147

সিনিয়র রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের আশ্বস্ত করে তাদের শঙ্কিত না হতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, পুঁজিবাজার ভালো করতে সব ধরনের পদক্ষেপ সরকার বাস্তবায়ন করছে।

পুঁজিবাজারে সাম্প্রতিক অস্থিরতায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের অসন্তোষের প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার একাদশ সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে তা নিয়ে কথা বলেন সরকার প্রধান।

তিনি বলেন, আমি বলব, খুব বেশি শঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। এটা কীভাবে ঠিক করা যায়, আমি এই পার্লামেন্টে বসেই কয়েকদিন আগে প্রায় রাত ১০টা পর্যন্ত সভা করেছি।

বিনিয়োগেকারীদের বিক্ষোভের পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে করে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি কয়েকটি পদক্ষেপ নিয়েছে।

টানা দরপতনের পর ওই সব পদক্ষেপের মধ্যে মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৭ পয়েন্ট বেড়েছে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৪৩ পয়েন্ট।

আগের দিন বড় দরপতনের মধ্য দিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ফিরে গিয়েছিল ২৭ মাস আগের অবস্থানে। তা নিয়ে সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতাসহ একাধিক সংসদ সদস্য কথা বলার পর প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসবাণী আসে।

সংসদে যোগ দেওয়া বিএনপির হারুনুর রশীদ বলেন, কেন জানি না, এ সরকার ক্ষমতায় থাকলেই শেয়ারবাজারে ধস নামে। ১৯৯৬ সালের শেয়ারবাজারের ধসে লাখ লাখ মানুষ সর্বশান্ত হয়েছিল। এখন আবার কয়েক দিন ধরে শেয়ারবাজারে ধস চলছে। বিনিয়োগকারীরা আন্দোলন করছেন। কিন্তু ধস ঠেকানো যাচ্ছে না। ধসের কারণ দেশ থেকে টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, এই শেয়ারবাজার নিয়ে অতীতে অনেক ঘটনা ঘটে গেছে। এটা যেন স্থিতিশীল থাকে তার জন্য অনেক ব্যবস্থাও আমরা নিয়েছি। সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থাপনায় যা যা করা দরকার, এটা তো আমরা করে যাচ্ছি। সব রকম সুযোগও আমরা দিচ্ছি। হঠাৎ খুব বেশি ওঠে আবার পড়ে না যায়, সে ব্যাপারে যা নিয়ন্ত্রণ করার, আমরা নিচ্ছি।

পুঁজিবাজারে কারসাজি ঠেকাতেও সজাগ থাকার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে কেউ যদি কোনোরকম গেইম খেলতে চায়, অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং নেওয়া হবে।

সেই সঙ্গে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সতর্কতার সঙ্গে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরামর্শও দেন তিনি।

শেয়ারবাজারে যারা যাচ্ছে, তাদের তো এটা জানাই উচিৎ যে, এখানে গেলে লাভও যেমন হবে, লোকসানও তেমন হবে। লাভ করলেই খুশি, আর কিছু হলেই সব সরকারের দোষ, এটা তো ঠিক না। এটা অনেকটা জুয়া খেলার মতো। যারা যাবে তাদেরকে এটা বিবেচনা করে যেতে হবে, কোন কোম্পানির শেয়ার কিনেছে, কোম্পানির প্রকৃত অবস্থাটা কী, সে কোম্পানিতে দিলে লাভ হবে কি না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here