বিধি ভঙ্গে ৩ অডিটর ও দুটি ফার্মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

0
205

স্টাফ রিপোর্টার : দি ইন্সটিটিউট চ্যাটার্ড অ্যাকাউন্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) পেশাগত আচরণ ভঙ্গের দায়ে ৩ অডিটর ও ২ সিএ ফার্মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড ডিসিপ্লিনারি কমিটির (আইডিসি) তদন্তের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিএবি।

ফার্মগুলো হলো- এ মতিন অ্যান্ড কোং, নুরুল আজিম অ্যান্ড কোং, মোল্লা কাদির ইউসুফ অ্যান্ড কোং, এম এ তালেব অ্যান্ড কোং, এবং এস এস মিয়াজি অ্যান্ড কোং।

 আইসিএবির ওয়েবসাইটে বৃহস্পতিবার এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

এ মতিন অ্যান্ড কোং : পেশাগত আচরণবিধি ভঙ্গ করে নিউ হোপ ফিড মিলস বাংলাদেশ লিমিটেডের ৩০ জুন,২০১০ অর্থবছরের নিরীক্ষক হয়েছে। যে কারণে অডিট ফার্মটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক একে আব্দুল মতিনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। আগামী ৩ মাসের মধ্যে জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করলে ৩ বছরের জন্য সদস্যপদ স্থগিত করা হবে।

নুরুল আজিম অ্যান্ড কোং: অডিটর ফার্মটিকে পেশাগত আচরণবিধি ভঙ্গ করার কারণে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আগামী ৩ মাসের মধ্যে জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করলে ৩ বছরের জন্য সদস্যপদ স্থগিত করা হবে।

মোল্লা কাদির ইউসুফ অ্যান্ড কোং : অডিটর ফার্মটি ২০১৩-১৪ এবং ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বৈধ সার্টিফিকেট প্রাকটিস ছাড়া কাজ করে যাচ্ছে। যে কারণে ১ লাখ টাকা জরিমানা করাহয়। আগামী ৩ মাসের মধ্যে জরিমানার অর্থ পরিশোধ করা না হলে ২ বছরের জন্য সদস্যপদ স্থগিত করা হবে।

এম এ তালেব অ্যান্ড কোং : অডিটর ফার্মটি ২০১৩-১৪ অর্থবছর থেকে তাদের প্রাকটিস সার্টিফিকেট আপডেট করেনি। এছাড়া ২০১৫ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটি আইসিএবির কাছে বার্ষিক রিটার্ন জমা দেয়নি। যে কারণে ফার্মটির মালিক এম আবু তালেব এফসিএর নাম প্রাকটিসরত সদস্য পদের তালিকা থেকে বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এস এন মিয়াজি অ্যান্ড কোং : অডিটর ফার্মটি ২০১৪-১৫ অর্থবছর থেকে তাদের প্রাকটিস সার্টিফিকেট আপডেট করেনি। এছাড়া ২০১৫ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটি আইসিএবির কাছে বার্ষিক রিটার্ন জমা দেয়নি।

এছাড়া ফার্মটির মালিক এস এম নুরুল ইসলাম মিয়াজি এফসিএ সম্প্রতি মারা গেছেন। তাই ফার্মটির মালিক এস এম নুরুল ইসলাম মিয়াজি এফসিএর নাম প্রাকটিসরত সদস্য পদের তালিকা থেকে বাতিল এবং চ্যাটার্ড অ্যাকাউন্টস ফার্মের তালিকা থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here