বিদ্যুৎ খাতের মাস্টার প্ল্যান আসছে

0
539

স্টাফ রিপোর্টার : বিদ্যুৎ খাতের মহাপরিকল্পনাকে নতুন করে সাজানো হচ্ছে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। প্রতিটি প্রকল্পের জন্য নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হবে। পরিকল্পনায় বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থার সঙ্গে বিতরণ ব্যবস্থাকেও যুক্ত করা হবে। জ্বালানি বিভাগের সম্পৃক্ততা থাকবে।সময়মতো শুরু হয়নি অনেক প্রকল্প। শুরু হলেও নির্ধারিত সময়ে শেষ হয়নি। তাই পুনর্বিন্যাস ঘটছে বিদ্যুৎ খাতের মহাপরিকল্পনায় (মাস্টার প্ল্যান)।

বিদ্যুৎ বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা জাইকার সহায়তায় ২০১০ সালে সর্বশেষ মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন করা হয়েছিল। এই পরিকল্পনায় ২০৩০ সাল পর্যন্ত বছরভিত্তিক চাহিদার পাশাপশি বিভিন্ন জ্বালানিভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিবরণ দেওয়া আছে। গত চার বছরের রেকর্ড অনুযায়ী ক্ষুদ্র ও স্বল্পমেয়াদি প্রকল্পগুলোর ক্ষেত্রে সাফল্য এলেও দীর্ঘমেয়াদি বড় প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে ব্যর্থ হয়েছে সরকার। অতীতে ব্যর্থতা বিশ্লেষণ করে মাস্টার প্ল্যান আবার পুনর্বিন্যাস করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বর্তমান মহাপরিকল্পনায় ২০৩০ সালের মধ্যে ৩৮ হাজার ৩৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। ২০২১ সালের মধ্যে প্রয়োজন হবে ১৮ হাজার ৮৩৮ মেগাওয়াট, যার অর্ধেক বিদ্যুৎ আসবে কয়লা থেকে। কিন্তু সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী দেশি কয়লা দিয়ে নিকট ভবিষ্যতে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব নয়। তাই মাস্টার প্ল্যানে পরিবর্তন আনতে হবে বলে সূত্র জানিয়েছে। এছাড়া সরকার ২০২১ সালের মধ্যে প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে। এতেও মাস্টার প্ল্যান পুনর্বিন্যাস করার প্রয়োজন হচ্ছে বলে বিদ্যুৎ বিভাগ মনে করছে।

এই খাতের মহাপরিকল্পনায় (মাস্টার প্ল্যান) হলে শেয়ার বাজারে প্রভাব থাকবে বলে বিশ্লেষকরা বলছেন। এতে সাধারন বিনিয়োগকারীরা উপকৃত হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here