বিক্ষোভ : স্থিতিশীল বাজার কতদূর

0
317

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সামনে বিক্ষোভ করছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। বাজারে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে প্রণোদনা প্যাকেজসহ বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ নেয় সরকার। তবুও স্থিতিশীলতা ফিরে না আসায় রোববার বিক্ষোভ করেন বিনিয়োগকারীরা। এজন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও উভয় স্টক এক্সচঞ্জকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

তবে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ঠরা বলছেন, প্রণোদনার ৯০০কোটি টাকার মধ্যে ইতোমধ্যে ৩০০কোটি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। তবুও বাজার স্থিতিশীলতার পশথ ফিরতে শুরু করেনি। তবে স্থিতিশীলতার বাজার কতদূরে? এমন প্রশ্ন এ প্রতিবেদকে করেছেন অনেকে।

রোববার দুপুর পৌনে একটার দিকে বিনিয়োগকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্যপরিষদের পক্ষ থেকে অনির্ধারিত এই বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হয়। বিক্ষোভের বিষয়ে ঐক্যপরিষদের সভাপতি মিজানুর রশিদ চৌধুরী বলেন, বাজার ভালো করতে সরকারের পক্ষ থেকে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। তা বাস্তবায়নে ৯০০ কোটি টাকা পুনর্অর্থায়ন বাবদ বরাদ্দের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এরইমধ্যে প্রণোদনার প্রথম কিস্তির টাকা ছাড় দেয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরও বাজারে স্থিতিশীলতা ফিরে আসেনি। বর্তমানে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বাজারের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়। তারা বিনিয়োগ না করে তহবিল গুটিয়ে বসে আছেন। সরকার প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বাজারে ফিরিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে বলে তিনি জানান।

বর্তমানে বাজারকে কিভাবে ভাল করতে হবে সে বিষয়ে সরকার ও বিএসইসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানান তিনি। দেশের পুঁজিবাজারে মুনাফা তোলার প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। ঈদ-উল-আযহা ও পুজোর ছুটির আগে দ্রুত মুনাফা এবং আগামী দিনের রাজনৈতিক অস্থিরতার আশঙ্কায় বাজারে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণও কমছে। যার কারণে এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রধান বাজার ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৩১ দশমিক ৩০ শতাংশ। এমনকি সেখানে ৩শ’ কোটি টাকার নিচে লেনদেনের ঘটনাও ঘটছে। যা গত দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেনের ঘটনা। উভয় বাজারেই লেনদেনের সঙ্গে বেশিরভাগ কোম্পানির দরপতনের কারণে সূচকও কমেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here