১০ টাকার শেয়ারে ১২৬ টাকা মুনাফা!

0
2960

স্টাফ রিপোর্টার : ১০ টাকার প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে ২০১৬ সালের ব্যবসায় ১২৬ টাকা মুনাফা করেছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ কোম্পানি (বিএটিবিসি)। যা আগের বছরের তুলনায় ২৯ শতাংশ বেড়ে মূলধনের ১২.৬ গুণে দাঁড়িয়েছে। তবে কোম্পানির লভ্যাংশের তুলনায় বেশি হারে বাড়ছে শেয়ার দর।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) ১২৬.৮৪ টাকার বিপরীতে ৬০০ শতাংশ বা প্রতিটি শেয়ারে ৬০ টাকা লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এ হিসাবে মুনাফার ৪৭ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ৫৩ শতাংশ কোম্পানির রিজার্ভে যোগ হবে।

বিএটিবিসি ২০১৫ সালে ইপিএস করেছিল ৯৭.৯০ টাকা। এর বিপরীতে ৫৫০ শতাংশ বা শেয়ারপ্রতি ৫৫ টাকা লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়েছিল। এ হিসাবে ২০১৬ সালে ইপিএস বেড়েছে ২৮.৪৭ টাকা ও লভ্যাংশ ঘোষণা বেড়েছে শেয়ারপ্রতি ৫ টাকা।

এদিকে কোম্পানির লভ্যাংশ বাড়লেও, তার চেয়ে বেশি হারে বাড়ছে শেয়ার দর। ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিটি শেয়ারে ৪২ টাকা লভ্যাংশ ঘোষণা করেছিল। ফলে ওই সময় শেয়ার দরের তুলনায় লভ্যাংশের পরিমাণ (ডিভিডেন্ড ইল্ড) ছিল ৬.৭১ শতাংশ। যার পরিমাণ ২০১৬ সালে কমে দাঁড়িয়েছে ২.৩৯ শতাংশে। অর্থাৎ প্রতিষ্ঠানটিতে যে হারে লভ্যাংশ ঘোষণা বাড়ছে, তার চেয়ে অনেক বেশি শেয়ার দর বেড়েছে।

২৭ ফেব্রুয়ারি কোম্পানির মূল্য-আয় অনুপাত (পিই রেশিও) দাঁড়িয়েছে ২৫.৬১ পয়েন্টে। এ হিসাবে প্রতিষ্ঠানটির প্রতিটি শেয়ারে বর্তমানে অবস্থানরত ২৫০৭ টাকায় বিনিয়োগ করলে, তা ফেরত পেতে প্রায় ২৬ বছর লেগে যাবে। যেখানে ডিএসইর সার্বিক পিই অবস্থান করছে ১৬ পয়েন্টে। এ ছাড়া অধিকাংশ ব্যাংকের পিই রয়েছে একক ঘরে।

এদিকে ২০১৬ সালে কোম্পানির নিট পরিচালন নগদ প্রবাহ (এনওসিপিএস) হয়েছে ৭০.৫৮ টাকা। আর এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৩১৪.৭১ টাকায়।

কোম্পানির ঘোষিত লভ্যাংশ ও অন্য আলোচ্য বিষয়সমূহ শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য আগামী ১৯ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। আর শেয়ারহোল্ডার নির্বাচনের জন্য ২১ মার্চ রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে।

১৯৭৭ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিএটিবিসির পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ রয়েছে ৬০ কোটি টাকা। এক্ষেত্রে উদ্যোক্তা/পরিচালকদের কাছে কোম্পানির ৭২.৯১ শতাংশ মালিকানা রয়েছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১১.৭১ শতাংশ, সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ০.৭৯ শতাংশ ও সরকারের কাছে ০.৬৪ শতাংশ রয়েছে।

উল্লেখ্য, সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) লেনদেন শেষে কোম্পানির শেয়ার দর দাঁড়িয়েছে ২৫০৭.৬০ টাকায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here