বার্ষিক রপ্তানি আয়ে লক্ষ্যমাত্রা ব্যহত

0
501

2013এস বি ডেস্ক : সদ্য সমাপ্ত ২০১২-১৩ অর্থবছরের বার্ষিক রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হলো না। তবে আলোচ্য বছরের রপ্তানি আয় তার আগের অর্থবছরের চেয়ে ১১ শতাংশ বেড়েছে। গতকাল প্রকাশিত রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ পরিসংখ্যান থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। এতে দেখা যায় যে গত অর্থবছরে পণ্য রপ্তানি আয় দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৭০১ কোটি ৮২ লাখ ডলারে। আর বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রা ছিল দুই হাজার ৮০০ কোটি ডলার।

অন্যদিকে, ২০১১-১২ অর্থবছরে রপ্তানি আয় ছিল দুই হাজার ৪৩০ কোটি ১৯ লাখ ডলার। মূলত গত অর্থবছরের দ্বিতীয় মাস থেকেই রপ্তানি আয় মাসওয়ারি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কম হয়ে এসেছে। এই ধারাবাহিকতায় অর্থবছরের শেষ মাস জুনে এসেও ২৮৪ কোটি ডলারের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ শতাংশ কমে প্রকৃত রপ্তানি আয় দাঁড়িয়েছে ২৬৯ কোটি ৬৩ লাখ ডলার। অবশ্য তার আগের অর্থবছরের চেয়ে রপ্তানি আয় বেড়েছে প্রায় সাড়ে ১৬ শতাংশ।

123ইপিবির পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখা যায়, প্রধান রপ্তানি পণ্যগুলোর মধ্যে নিট পোশাক, পাট ও পাটজাত পণ্য, হিমায়িত খাদ্য, হোম টেক্সটাইল, চামড়া, পাদুকা ইত্যাদি পণ্যের রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে ব্যর্থ হলেও রপ্তানি আয় গত বছরের চেয়ে বেড়েছে। নিট পোশাকের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল এক হাজার ৬১ কোটি ডলার। হয়েছে এক হাজার ৪৭ কোটি ৫৮ লাখ ডলার। অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় দেড় শতাংশ কম আয় হয়েছে।

তবে ২০১১-১২ অর্থবছরের তুলনায় এই আয় সাড়ে ১০ শতাংশ বেশি। প্রধান রপ্তানি পণ্যগুলোর মধ্যে ওভেন পোশাকের রপ্তানি আয় গত বছরের চেয়ে বেশি হওয়ার পাশাপাশি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। গত অর্থবছরে এক হাজার ৯২ কোটি ৭৩ লাখ ডলার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে প্রকৃত রপ্তানি আয় হয়েছে এক হাজার ১০৪ কোটি ডলার। অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে এক শতাংশ বেশি আয় হয়েছে। আবার ২০১১-১২ অর্থবছরের তুলনায় এই আয় প্রায় ১৫ শতাংশ বেশি।

দেখা যাচ্ছে, প্রধান রপ্তানি খাত তৈরি পোশাকের রপ্তানি আয় পরিস্থিতি মোটামুটি অপরিবর্তিত রয়েছে। রপ্তানি আয়ের বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হলেও বার্ষিক প্রবৃদ্ধির হার ১০ শতাংশের ওপরে থাকাকে মোটামুটি সন্তোষজনক মনে করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here