‘বর্তমানে পুঁজিবাজার স্থিতিশীল’ জানালেন অর্থমন্ত্রী

0
537

স্টাফ রিপোর্টার : বিশ্ব বিনিয়োগ সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, দুর্বল আইনি কাঠামোর কারণেই ১৯৯৬ ও ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ধস হয়েছে। সর্বশেষ ২০১০ সালের ধসের পর চার বছর সময় নিয়ে আইনি সংস্কার করা হয়েছে। ফলে ২০১৩ সালের দিকে পুঁজিবাজারের আইনি কাঠামো একটা পর্যায়ে এসেছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে পুঁজিবাজার স্থিতিশীল পর্যায়ে রয়েছে। নতুন নতুন পণ্য বাজারে যোগ হচ্ছে। পাঠক্রমে পুঁজিবাজারের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টি সরকার বিবেচনা করবে।

রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে এক অনুষ্ঠানে বিনিয়োগকারী সপ্তাহের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও সোমবার শুরু হয়েছে ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ ২০১৭’। অনুষ্ঠানে দেশব্যাপী চলমান ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি কর্মসূচির শুভেচ্ছা দূত হিসেবে বিশ্বসেরা ক্রিকেট অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের নাম ঘোষণা করা হয়।

বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশে অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনাদের প্রতি আমার পরামর্শ থাকবে, বিনিয়োগের আগেই যথেষ্ট পড়াশুনা করে, জেনে বুঝে তার পরে পুঁজিবাজারে আসবেন। সাবধানে অগ্রসর হলে, আপনার সম্পদ ভবিষ্যতে সমৃদ্ধ হয়ে আপনার কাছেই ফিরে আসবে।

স্বাগত বক্তব্যে বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রকদের বৈশ্বিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশনসের (আইওএসসিও) আহ্বানে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৮১টি দেশে ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ ২০১৭’ পালিত হচ্ছে। আইওএসসিওর ‘এ’ ক্যাটাগরির সদস্য হিসেবে  বৈশ্বিক এ আয়োজনের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমরা আনন্দিত।

কমিশন চেয়ারম্যান আরো বলেন, দেশের পুঁজিবাজারে ২০১০-১১ সালের উত্থান-পতনের পরে বর্তমান কমিশন দায়িত্ব গ্রহণ করে। পরবর্তী বছরগুলোয় বাজার উন্নয়ন ও বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণে  অনেক আইনি ও কাঠামোগত সংস্কার করা হয়েছে। এতে পুঁজিবাজার বর্তমানে একটি শক্ত ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়েছে। এ কারণে দেশী ও বিদেশী বিনিয়োগকারীরা বাজারের প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. ইউনুসুর রহমান।

বেলুন ও পায়রা উডিয়ে বিনোয়োগকারী সপ্তাহের উদ্বোধন করা হয়

বিএসইসির শুভেচ্ছাদূত সাকিব আল হাসান তার বক্তব্যে বলেন, সচেতনতামূলক কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমি আনন্দিত ও গর্বিত। আমি ইংল্যান্ডে যখন খেলতে যাই তখন তাদের পুঁজিবাজার নিয়ে পড়াশুনা করতে দেখেছি। আমি তাদের কাছে এর কারণ জানতে চাইলে তারা বলে যে, ভবিষ্যতে তারা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করবে। তাই বিনিয়োগের আগে এ সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করছে। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটেও বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজার সম্পর্কে পড়াশুনা করে, জেনে বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে।

বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ ২০১৭-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে শিল্পকলা একাডেমি থেকে জাতীয় প্রেসক্লাব পর্যন্ত একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিতে বিএসইসি, স্টক এক্সচেঞ্জ ও বাজার-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি বিনিয়োগকারীরাও অংশগ্রহণ করেন। ৮ অক্টোবর বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ শেষ হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here