ফের চাঙ্গা ড্রাগন সোয়েটার, আটকা আরো চারটি কোম্পানি

1
444

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ১১ কার্যদিবস পর ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার লেনদেন স্বাভাবিক মার্কেটে পুনরায় চালু করে দেয়। রোববার ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার স্বাভাবিক মার্কেটে লেনদেন হওয়ার পর থেকেই শেয়ারটির চাঙ্গাভাব বিরাজ করছে।

তবে এখনো আটকা পড়ে আছে চারটি কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো- মুন্নু সিরামিক, কে অ্যান্ড কিউ, আজিজ পাইপস এবং স্টাইল ক্রাফট। শেয়ার দরের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি ঠেকাতে কোম্পানিগুলোকে স্পট মার্কেটে পাঠিয়ে দেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

সামগ্রিক পুঁজিবাজারে নেতিবাচক প্রভাব থাকলেও ড্রাগন সোয়েটারের কোম্পানির শেয়ার দর ইতিমধ্যে ৯.৮৫ শতাংশ দর বৃদ্ধি পেয়েছে। শেয়ার প্রতি ৩.৩০ টাকা দর বৃদ্ধি পেয়ে কোম্পানিটির সর্বশেষ শেয়ার দর দাঁড়িয়েছে ৩৬.৮০ টাকা। বিক্রেতা সংকটে  কোম্পানির শেয়ার দর হল্টেড হয়। তবে মুক্তি পেয়ে ড্রাগন সোয়েটার ফের চাঙ্গা অবস্থায় ফিরলেও বাকি ৪ কোম্পানি এখনো স্পট মার্কেটে আটকে রয়েছে। এসব কোম্পানির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

জানা যায়, অস্বাভাবিক লেনদেন ও দরবৃদ্ধির ধারার প্রেক্ষাপটে গত ১৬ আগস্ট অন্য চার কোম্পানির সঙ্গে এক আদেশে ড্রাগন সোয়েটারের শেয়ার স্বাভাবিক লেনদেন বাজার থেকে স্পটে লেনদেনের আদেশ দিয়েছিল কমিশন। এ নির্দেশ কার্যকর হয় গত ১৯ আগষ্ট থেকে। গত বৃহস্পতিবার তা প্রত্যাহার করে বিএসইসি।

এ ব্যাপারে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান জানান, অল্প সময়ে কোম্পানির শেয়ার দরে ব্যাপক উত্থানের কারণে এ কোম্পানিতে বিনিয়োগের আগে আগ্রহীদের সতর্ক করতে স্পটে মার্কেটে পাঠানো হয়েছিল। নিয়ন্ত্রণ আরোপের পর কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন ও দরের ওঠানামা স্বাভাবিক ও সন্তোষজনক পর্যায়ে এসেছে বলে কমিশন মনে করে। এ কারণে নিয়ন্ত্রণ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

অন্য যে চার কোম্পানির ক্ষেত্রে এমন নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, সেগুলো হলো- মুন্নু সিরামিক, কে অ্যান্ড কিউ, আজিজ পাইপস এবং স্টাইল ক্রাফট। কমিশন জানিয়েছে, রোববার থেকে ড্রাগনের লেনদেন সাধারণ মার্কেটে ফিরলেও এ চার কোম্পানির লেনদেন স্পট মার্কেটেই চলবে।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here