প্রথম সপ্তাহে ২১ হাজার নতুন বিও অ্যাকাউন্ট

0
551

স্টাফ রিপোর্টার : ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহের ৫ দিনে নতুন ২১ হাজার বেনিফিশিয়ারি ওনার্স বা বিও অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। দেশের শেয়ারবাজারের সার্বিক অবস্থা ভালো থাকায় সাধারণ মানুষের এই আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যে কারণে বাজারে আইপিওর অফার থাকায় বিও খোলার প্রবণতা বেড়েছে। নভেম্বর শেষে শেয়ারবাজারে মোট বিও ছিল ২৭ লাখ ৪৬ হাজার। সর্বশেষ যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ লাখ ৬৫ হাজার ১৪টিতে। সিডিবিএল (সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, গত কয়েক মাসে নতুন বেশকিছু নতুন কোম্পানি পুঁজিবাজারে এসেছে। এসব কোম্পানির আইপিও থেকে ভালো মুনাফা পেয়েছে বিনিয়োগকারীরা। ফলে তারা সেকেন্ডারি মার্কেটের পরিবর্তে প্রাইমারি বাজারের প্রতি ঝুঁকেছেন।

মূলত নতুন কোম্পানির শেয়ার লেনদেন শুরুর স্বল্প সময়ের মধ্যে লভ্যাংশ ঘোষণার সম্ভাবনায় এসব শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেড়ে যায়। অনেক বিনিয়োগকারী আইপিও শেয়ার পাওয়ার আশায় নিজে একাধিক এবং আত্মীয় স্বজনের নামে বিও হিসাব খুলেছেন বলে বিভিন্ন মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউসের কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

ব্রোকারেজ হাউসের কর্মকর্তারা বলছেন, ২০১০ সালে নতুন বিনিয়োগকারীরা বাজারে আসতে শুরু করে। এতে বিও হিসাব খোলার হারও বেড়ে যায়। পরে তা কমে গেলেও বর্তমানে প্রতিদিনই বিও খোলার জন্য নতুন লোক আসছে। কিছুদিন আগেও যেটা লক্ষ্য করা যায়নি। এর প্রধান কারণ হচ্ছে নতুন আইপিওর অফার। তাদের মতে বিওর সংখ্যা আগের পরিমাণে ফিরে না গেলেও চলতি অর্থবছরে তা পূরণ হয়ে যাবে বলে তারা মনে করেন।

বর্তমানে মোট ২৭ লাখ ৬৫ হাজার ১৪টি বিও অ্যাকাউন্টের মধ্যে পুরুষ অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৯৬৬টি। নারী বিও অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা ৭ লাখ ৭৪ হাজার ৩৯টি। অন্যদিকে বর্তমানে কোম্পানির বিও অ্যাকাউন্ট রয়েছে ৯ হাজার ৬০৯টি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here