‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ গঠনে চীনের প্রতিনিধি ডিএসইতে

0
911

স্টাফ রিপোর্টার : পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা সফর শেষে চায়নার প্রতিনিধি দলের ৯ সদস্য বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শন শেষে প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ডিএসই কর্তৃপক্ষ এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সর্ম্পক স্থাপন ও ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ নামে নতুন পুঁজিবাজার গঠন সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

ডিএসইর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিরে মাধ্যমে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে, লিও গুয়ানজিং পরিচালক, ফাইন্যান্সিয়াল এ্যাফেয়ার্স, অফিস অব ইউনান পিপলস গর্ভমেন্ট (ডেপুটি মিনিষ্টার লেভেল), পিপলস রিপাবলিক অব চায়না এর নেতৃত্বে চীনের ৯ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল ডিএসই পরিদর্শন করেন। পরে ডিএসই’র চেয়ারম্যান বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়ার নেতৃত্বে ডিএসই’র পরিচালনা পর্ষদ বৈঠকে মিলিত হন।

ডিএসই’র চেয়ারম্যান চীনের প্রতিনিধিদলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ডিএসই নভেম্বর ২০১৩ তে ‘কুনমিং প্যান এশিয়া গোল্ড এক্সচেঞ্জ’ এর সাথে লেটার অব ইনটেন্ড-এ স্বাক্ষর করেছে এবং জুন ২০১৪ তে কুনমিং এ ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ (পিএএসই) গঠনের জন্য যৌথ ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেছে। ডিএসই প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জের সাথে কাজ করতে আগ্রহী। ডিএসই বর্তমানে মাল্টি প্রোডাক্ট যেমনঃ সুকুক, ইটিএক এবং অন্যান্য ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্ট চালু করতে সক্ষম।

ইন্টারন্যাশনাল লজিস্টিকস অ্যান্ড ফাইন্যান্স অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান লিও জিনঝিন কে ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ এর অপারেশনাল কার্যক্রম শুর আহ্বান জানান যাতে ডিএসই ও ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’ এবং বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সর্ম্পক স্থাপনে অবদান রাখা যায়।

পরিচালক লিও গুয়ানজিং বলেন, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা সফর শেষে বাংলাদেশে এসেছি। ইতিপূর্বে প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ স্থাপনের জন্য যৌথ ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর  করা হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে এটি দ্রুত বাস্তবায়িত হবে। এজন্য বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ও সরকারের কাছে সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

পরে ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ড. স্বপন কুমার বালা বলেন, ডিএসই’র প্রতিনিধি ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে চীন সফর করেছে। ইতিমধ্যে এই প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাথে বৈঠক করেছে। আশা করা যাচ্ছে উত্থাপিত নিয়ন্ত্রণমূলক বিষয়গুলো দ্রুত সমাধান হবে।

তিনি আরও বলেন, ডিএসই ‘প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ’-এ যোগদানের জন্য যৌথ ঘোষনা পত্রে স্বাক্ষর করেছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমতি সাপেক্ষে ডিএসই এই এক্সচেঞ্জে অংশগ্রহণ করতে পারব। এছাড়াও বৈঠকে পুঁজিবাজারের উন্নয়ন, প্যান এশিয়া স্টক এক্সচেঞ্জ এবং দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সংযোগ স্থাপন, বিসিআইএম এর মধ্যে বেসরকারী খাতের সহেযাগিতা প্রক্রিয়ার সমর্থন ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, ডিএসই’র পরিচালক মিসেস মনোয়ারা হাকিম আলী ও রুহুল আমিন, শাকিল রিজভী, মোহাম্মদ শাহজাহান, খাজা গোলাম রসুল ও শরীফ আনোয়ার হোসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here