পেনিনসুলা পাঁচ তারকা হোটেল করবে খুলনায়

0
745

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের পর এবার খুলনায়ও পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণ করতে যাচ্ছে দ্য পেনিনসুলা চিটাগং লিমিটেড। এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে খুলনা শেখ আবু নাছের আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের পাশে ২৮ কাঠার বেশি জমি ইজারা নিয়েছে পেনিনসুলা কর্তৃপক্ষ।

খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) কাছ থেকে ৯৯ বছরের জন্য এ জমি পেতে পেনিনসুলার খরচ হয়েছে ৭ কোটি ২১ লাখ ৯০ হাজার ৫০০ টাকা। সোমবার বিকালে চট্টগ্রামে পেনিনসুলার বোর্ডসভায় প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে প্রথম পাঁচ তারকা হোটেল পাবে খুলনা।

জানা গেছে, খুলনার জলিল সরণিতে ছয়টি প্লটের সমন্বয়ে ২৮ দশমিক ৩১ কাঠার জমি পেতে দরপত্রে অংশ নিতে হয়েছে পেনিনসুলাকে। সেখানে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে কেডিএর কাছ থেকে জমির ইজারা পায় তারা।

পর্ষদ সভায় অনুমোদনের পর এখন জমির পুরো টাকা কেডিএর অনুকূলে ছাড় দেবে পেনিনসুলা কর্তৃপক্ষ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, খুলনার হোটেলটি হবে পেনিনসুলা চিটাগং লিমিটেডের তৃতীয় প্রকল্প। নিজস্ব পরিচালন ব্র্যান্ডের আওতায় ‘পেনিনসুলা এয়ারপোর্ট গার্ডেন’ নামে আরেকটি পাঁচ তারকা হোটেলের কাজ চলছে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পাশে। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অর্থ মূলত এ প্রকল্পে বিনিয়োগ করছে কোম্পানিটি।

খুলনায় পেনিনসুলার তৃতীয় প্রকল্পটির কাজ ২০১৯ সাল নাগাদ শেষ করার প্রাথমিক পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে পেনিনসুলার কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ নূরুল আজিম বলেন, পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন হলে খুলনা হবে দেশের আরেকটি ব্যস্ততম জনপদ। মংলা বন্দর, মংলা ইপিজেড, রামপাল কয়লাবিদ্যুৎকেন্দ্র ও একাধিক বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল ছাড়াও বর্তমান সরকারের অনেক বড় প্রকল্প রয়েছে খুলনা অঞ্চল ঘিরে। ফলে ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন ক্ষেত্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাবে খুলনা।

তিনি বলেন, এ অঞ্চলের ভবিষ্যৎ বাণিজ্যিক সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখেই আমরা সবার আগে আন্তর্জাতিক মানের হোটেল সেবা নিয়ে সেখানে হাজির হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

এদিকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত দুই সপ্তাহে পেনিনসুলার শেয়ারদর বেড়েছে ৩৩ দশমিক ২ শতাংশ। অঘোষিত পর্ষদ সভার ঠিক আগের কার্যদিবসে স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ কোম্পানির কাছে জানতে চায়, শেয়ারদর অস্বাভাবিকভাবে বাড়াতে পারে— অপ্রকাশিত এমন কোনো মূল্যসংবেদনশীল তথ্য তাদের হাতে আছে কিনা। জবাবে কোম্পানি জানিয়েছে, এমন কোনো তথ্য তাদের কাছে নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here