পরিচালকের মৃত্যু, বিলম্বিত এডিএন টেলিকমের আইপিও

1
1118

সিনিয়র রিপোর্টার : বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসছে এডিএন টেলিকম লিমিটেড। ৫৭ কোটি টাকা উত্তোলনের উদ্দেশ্যে কোম্পানির কাট অফ প্রাইস বা প্রান্তসীমা মূল্য নিধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা।

নতুন দুই পরিচালকের নামে শেয়ার বন্টন শেষে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি চূড়ান্ত আইপিও অনুমোদনে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বৈঠকে উঠছে।

সম্প্রতি এডিএন টেলিকম লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদে পরিবর্তন আনা হয়। কোম্পানিটির সাবেক পরিচালক খন্দকার মাহমুদা সাঈদের স্থানে বর্তমানে দুজন প্রতিনিধি পরিচালক যোগ দেয়া হয়েছে।

মরহুমা খন্দকার মাহমুদা সাঈদের শেয়ার নতুন পরিচালকদের বিও হিসাবে হস্তান্তর প্রক্রিয়ার কারণে বিলম্ব।

তবে শেয়ার হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলছে এবং সম্পাদন শেষে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থার বৈঠকে আইপিও অনুমোদনের জন্য তোলা হবে।

সেই বৈঠকে অনুমোদনের বিশেষ সম্ভাবনা রয়েছে। এসব তথ্য জানায় এডিএন টেলিকমের ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

উল্লেখ্য, খন্দকার মাহমুদা সাঈদ দীর্ঘদিন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে চিকিৎসা নেন। বিদেশে ক্যান্সারের চিকিৎসা ব্যয় বহনে তিনি তার সব শেয়ার স্যাভয় আইসক্রিম ফ্যাক্টরির কাছে বিক্রি করেন। এরপরে চলতি বছরের ৭ এপ্রিল তিনি মারা যান।

তার পদ পূরণের জন্য স্যাভয় আইসক্রিম ফ্যাক্টরির পরিচালক নিয়াজ আহমেদ ও ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফিন্যান্স মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের পরিচালক ওয়াকার আহমেদ চৌধুরীকে প্রতিনিধি পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

আইপিওর মাধ্যমে এডিএন টেলিকম শেয়ারবাজার থেকে ৫৭ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এর মধ্যে বিডিংয়ে যোগ্য বিনিয়োগকারীদের জন্য বরাদ্দ ৩৫ কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here