পদ্মা সিমেন্ট কোম্পানি অবলুপ্ত, ১৫ দিনের মধ্যে দাবিনামা দাখিলের আদেশ

1
1272

বিশেষ প্রতিনিধি : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটের সিমেন্ট খাতের পদ্মা সিমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড অবশেষে অবলুপ্ত হয়েছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে কোম্পানির সাবেক কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিক, পাওনাদার এবং শেয়ারহোল্ডারদের পাওনা আদায়ে কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালের কোম্পানি আইনের ১৩৩ ধারা মোতাবেক পদ্মা সিমেন্ট লিমিটেড কোম্পানি অবলুপ্ত হয়েছে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিমকোট, হাইকোর্ট বিভাগের কোম্পানি কোর্টের ম্যাটার নং-৫৩/২০১২ দাবিনামা দাখিলের আদেশ দেয়া হয়েছে।

আদেশে বলা হয়েছে, পদ্মা সিমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড কোম্পানির কোনো পাওনা থাকলে পাওনার স্বপক্ষে মূল কাগজ পত্র/দলিল পত্রসহ সুপ্রিমকোর্ট, হাইকোর্ট বিভাগে এফিডেভিট করে নিজে অথবা আইনজীবীর মাধ্যমে পদ্মা সিমেন্টের অফিসিয়াল লিক্যুইডেটরের ঠিকানায় (মো. মোকছেদুল ইসলাম, ব্যারিস্টার-এট-ল’, ৩/এ, সোনারতরী টাওয়ার, ১২ সোনারগাঁও রোড, বাংলামটর, ঢাকা-১০০০) আগামী ১৫ দিনের মধ্যে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। পরবর্তীতে দাবিনামা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর দাবি সুপ্রিমকোর্ট, হাইকোর্ট বিভাগের কোম্পানি কোর্টে দাখিল করা হবে।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, এ কোম্পানি শাহাজাদপুরের বাগবাড়িতে ফ্যাক্টরি খুলে সুবিধা করতে পারেনি। ২০১০ সালের জুন মাসে পদ্মা সিমেন্ট লিমিটেড কোম্পানি উৎপাদন বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে এ আর সিমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড নামে আরেক সিমেন্ট কোম্পানিকে ভাড়া দেয়া হয়। উৎপাদনশীলতা না বাড়ায় লোকসানের তলানিতে পড়ে এ কোম্পানি। ফলে ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ফ্যাক্টরি ছেড়ে দেয়। বর্তমানে ফ্যাক্টরিটিতে দেশবন্ধু সিমেন্ট উৎপাদন হ”েছ।

এদিকে ব্যাংক ঋণের বোঝা বাড়তে বাড়তে শ্রেণীকৃত ঋণের আওতায় চলে গেছে পদ্মা সিমেন্ট। এ কোম্পানির নিট সম্পদ মূল্য ১৩ কোটি ৬৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা, অথচ ব্যাংক ঋণ প্রায় ৪০ কোটি টাকা। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ কোম্পানিটি দখল বুঝে নিয়ে দেশবন্ধু গ্রুপের নিকট বিক্রি করে দেয়। কোম্পানিতে বিনিয়োগকারীসহ অন্য পাওনাদারদের বিপুল পরিমাণ অর্থ আটকে যায়। তাদের পাওনা পরিশোধ করতেই সম্প্রতি আদালত এ নির্দেশনা দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here