‘ধরা খাইলাম টেক্সটাইলে’

0
2411

সিনিয়র রিপোর্টার : ‘ভাইরে, ধরা খাইলাম টেক্সটাইলে। নতুন কোম্পানি বাজারে আইছে। অনেক নাম-ডাক শুনলাম। এখন হেও ডুবল, আমারেও ডুবাইল। এখন না পারি কাউকে কইতে- না পারি সইতে। বড় জ্বালায় আছি দাদা…। এসব বলেন আফছার নামে এক বিনিয়োগকারী।

রাজধানীর মৌচাকে মঙ্গলবার দুপুরে এ প্রতিবেদকের কথা হয় তার সঙ্গে। পুঁজিবাজারের আগামীর সম্ভাবনা এবং আশঙ্কা নিয়ে কথা হলে তিনি বলেন, যে দিন যায় সে আর ফেরে না। এখন আমি চেষ্টা করছি, টেহাটা বার করি লই। আর জম্মে আমু না।

দক্ষিণাঞ্চলের ভোলায় তার বাড়ি। বেসরকারি একটি কোম্পানিতে অল্প বেতনে চাকরি করেন। আগে বেশ ভালো আয় রোজগার হতো তার এ ব্যবসায়। যে কারণে নিজের এবং গ্রামের বাড়ি থেকে আরো পুঁজি এনে বিনিয়োগ করেন।

প্রথমার্ধে ব্যবসা না বুঝে করলেও বেশ অর্থকড়ি কামিয়েছেন। যে কারণে রাজধানীতে স্ত্রী, দুই পুত্র এবং কণ্যাকে নিয়ে একটি ভাড়া বাসায় উঠেন। আফছার বলেন, ভালোই চলছিল। আমার দুলাভাই আমারে এ ব্যসায় আনছে। হ্যেয় বেশ কামায়য়া বিদেশ ভাগছে। হ্যের পরে আমিও বেশ ভালো করছি।

কিচ্ছু করতে ফারি নাই। যেমনে আইছে-এমনে গেছে। হেই সময় ঢাকার একটা জমিও ঠিক করছেলাম। হেয় কমলাপুরের এখানে, নিমুনে। আর কয়ডা টেহা বাড়ুক। এমন করে পরে আর লই নাই। এখন বুঝি, না কেনায় বুল করছি। কেনলে অহন থাকতো। বলে দীর্ঘশ্বাস ছাড়েন পঞ্চাশোর্ধ বয়সের আফছার।

এখন কেনছি, সিএনএ টেক্সটাইল। কইলো বাড়বো নতুন কোম্পানি- এখন দেখি বাটপাড়। দর ৮ টাকা, আমার অর্ধেক ট্যাহা গেছে। ওপরে আল্লাহ আছেন, সব কিছুর বিচার অইলে এরও বিচার হবে। বাটপাড়দের যারা এনছে, হ্যারও বিচার হবে।

এখন স্ত্রী-স্বজনদের থেকে দুর থাকেন আফসার। ব্যবসায় লোকসানের পরে ২০১৩ সালে মার্চে তাাদের বাড়ি পাঠান। এখন ঢাকায় একটি মেসে থাকেন।

বাজার পর্যবেক্ষণে বুধবার সকালে দেখা গেছে, টেক্সটাইল খাতে রয়েছে ৪২টি কোম্পানি। এখাতের সর্বোচ্চ দর বৃদ্ধির কোম্পানির শেয়ারে মূল্য হচ্ছে ২২৪ টাকা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মূল্যের শেয়ার দর ১০১ টাকা হচ্ছে মডার্ন ডায়িং কোম্পানি লিমিটেড।

Screenshot_1 Screenshot_2 Screenshot_3টেক্সটাইল খাতের ৪২ টি কোম্পানির মধ্যে ৭টি কোম্পানির শেয়ারের মূল্য ইস্যূ মূল্যের নিচে রয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো- ডেল্টা স্পিনিং কোম্পানি বুধবার  সকালে ওপেনিয় প্রাইস ছিল ৭.৮ টাকা, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের দর ৮.৩ টাকা, ম্যাকসন স্পিনিং কোম্পানির দর ৭ টাকা, ঢাকা ডায়িং কোম্পানি ৯ টাকা, জেনারেশন নেক্সট টেক্সটাইলের দর ৭.৯০ টাকা, ফ্যামিলি টেক্স ৮.৮ টাকা এবং সিএন্ডএ টেক্সটাইলের দর হচ্ছে ৮.২ টাকা।

Screenshot_4তবে জেনারেশন নেক্সট টেক্সটাইলের দর ৭.৯০ টাকা হলেও তা আরো কমার আশঙ্কা রয়েছে। কারণ, কোম্পানি ক্রমাগতভাবে ইপিএস কমছে। অন্যদিকে কোম্পানির উদ্যোক্তারা তাদের শেয়ার ধারণ গত বছরের তুলনায় কমিয়েছে। তাদের শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে শেয়ার ছেড়েছে বেশি।

Screenshot_5একই সঙ্গে কোম্পানির উদ্যোক্তা তার শেয়ার ছাড়ার কারণে বিপুল পরিমাণের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরাও ছেড়ে দিচ্ছে। এসব শেয়ার শুধু সাধারণ বিনিয়োগকারীরা কিনছেন, যার আগামী নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে। (দুটি চিত্রের মাধ্যমে প্রকাশ করা হল)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here