কয়েক দিনের পতন থেকে ফেরা কোম্পানির তালিকা

0
3212

রাহেল আহমেদ শানু : দেশের পুঁজিবাজারে ফের আশার সঞ্জার করেছে, আবার ফিরছে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দর এবং সূচক। এরমধ্যে ব্যাংক খাতের ৩০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সবগুলোর শেয়ার দরে উন্নতি হয়েছে। অন্য খাতের কোম্পানিগুলোও ঊর্ধমূখী আচরণ করছে। যে কারণে ফের আশার সঞ্জার করেছে কোম্পানিগুলো।

কোম্পানিগুলো পতন মুখে পাড়ার কারণ হিসেবে অনেকে বলেন, কোম্পানির আয়ের-ব্যয়ের চিত্র প্রকাশের সঙ্গে শেয়ারপ্রতি প্রভাব পড়েছে। অন্যদিকে বিনিয়োগকারীর ‘প্রফিট টেক’ করাও অন্যতম কারণকেও দেখা হচ্ছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভুক্ত শেয়ার লেনদেনকারী ৩৬৩টি কোম্পানির এক মাসের দর বিশ্লেষণ করে এমন চিত্র মেলে। স্টক বাংলাদেশের চার্ট পর্যালোচনা করে কোম্পানিগুলোর দৈনিক, পাক্ষিক এবং মাসিক হিসেবে দর পরিবর্তনের চিত্রসহ এমন তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি জানুয়ারি মাসে পতনের মুখে পড়া কোম্পানিগুলো এখন অনেক সম্ভাবনার পথে।

ব্যাংককিং খাতের ৩০টি প্রতিষ্ঠানের দর বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সবগুলো প্রতিষ্ঠানের শেয়ারপ্রতি দরে উন্নতি হয়েছে। আরো উন্নতির পথে রয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো। (নিচের চিত্রে প্রকাশ)

Screenshot_1
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে কোম্পানিগুলোর শেয়ার দরে পরিবর্তন শুরু হয়। নিরাশাবাদীদের দল থেকে বেরিয়ে বাজার তার নিজস্ব পথে চলতে থাকে। তবে মূলধনী কোম্পানিগুলোর পরিবর্তে স্বল্প মূলধনী কোম্পানিরগুলোর প্রভাব ছিল অনেক বেশি।

মূলধনী অনেক কোম্পানি পতন বৃত্তের মাঝে ছিল এবং স্বল্প মূলধনী কিছু কোম্পানির গায়ে বাতাস লেগে ভাসতে থাকে। যে কারণে অক্টোবর মাসের তুলনায় নভেম্বর মাসে অর্থাৎ ৩০ কর্মদিবসে তুলনামূলকভাবে সর্বোচ্চ দর হারিয়েছে ফান্ডামেন্টাল অনেক কোম্পানি। এরপরে সেই পতনের হাওয়া ফেব্রুয়ারি লাগে স্বল্প মূলধনী কিছু কোম্পানির গায়ে।

Screenshot_2
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

গত ৩০ দিনে সিমেন্ট খাতের ৭টি কেম্পানির মধ্যে ৪টি (ওপরের চিত্রে) কোম্পানির দরে বিশেষ পরিবর্তন হয়েছে। তবে প্রকৌশল খাতের ৩৩টি কোম্পানির মধ্যে (নিচের ছবিতে প্রকাশ) মিশ্র অবস্থা রয়েছে, এরমধ্যে কয়েকটির দর উন্নতির পথে। গত ৩০ দিনের শেয়ার লেনেদেনের চিত্রে দেখা যায়, পতন মুখ থেকে বেরিয়ে কয়েক দিনে কোম্পানিগুলোর শেয়ার দরে বেশ উন্নতি হয়েছে। হারানো গৌরব ফিরে পাচ্ছে কোম্পানিগুলো। ইতোমধ্যে নতুন করে সম্ভাবনার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে।

অনেক কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, কোম্পনিগুলোর শেয়ারপ্রতি (ইপিএস) আয়ও বেড়েছে।

Screenshot_3
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের বাজার পরিসংখ্যানে শুক্রবার দেখা গেছে, ডিএসইতে শেয়ার লেনদেনকারী ৩৬৩ কোম্পানির মধ্যে গত নভেম্বর মাসে ৭২ টি কোম্পানি সর্বোচ্চ দর হারায়। ডিসেম্বরে তা অনেক কমে এবং জানুয়ারিতে ছোট ঝড়ের মুখে পড়ে অধিকাংশ কোম্পানি ৩০ কার্যদিবসে শেয়ার দরে এবং সূচকে বিশেষ পরিবর্তন হয়। ইতোমধ্যে তা ফিরতে শুরু করেছে।

Screenshot_4
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

টেক্সটাইল খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে বেশি ঝড় বয়ে যায়। এই খাতের ৫০টি কোম্পানি মধ্যে বেশির কোম্পানির শেয়ার দরে ভাটা পড়ে। দর ও সূচকের পতনে অনেক বিনিয়োগকারী বিক্ষোভও করেন। গত সপ্তাহে সামান্য দর বেড়ে মিশ্র ধারায় অবস্থান নেয়। ইতোমধ্যে সেসব কোম্পানির দরে (ওপরের চিত্রে দেখুন) বেশ পরিবর্তন ঘটেছে।

Screenshot_5
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

ভ্রমণ খাতের চারটি কোম্পানির মধ্যে একটির (বিডি সার্ভিস) শেয়ার লেনদেন কালেভদ্রে কখনো হয়। কারণ, এই কোম্পানির প্রায় ৯৯ শতাংশ শেয়ার সরকারের। বাকি তিনটি কোম্পানির মধ্যে ৩০ দিনের শেয়ার লেনদেন চিত্রে শুধু ইউনাইটেড এয়ারের  শেয়ার দরে সামান্য পরিবর্তন হয়েছে।(ওপরের চিত্রে প্রকাশ)

Screenshot_6
স্টক বাংলাদেশ থেকে নেয়া কোম্পানির দর পরিবর্তনের চিত্র

সব খাতের মধ্যে মিউচ্যুায়াল ফান্ড অনেক এগিয়ে। এই খাতের ৪৯টি প্রতিষ্ঠানের কয়েকটি ঝড়ের মুখে পড়ে দরে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ইতোমধ্যে পূর্বের দর থেকে সেগুলো বেরিয়ে আলার ঝলকানি দিচ্ছে। বতমানে মিশ্র অবস্থায় থাকলেও বিপুল সম্ভাবনা মুখে রয়েছে এই খাতের অনেক প্রতিষ্ঠান। কারণ, বেশিরভাগ ফান্ডের ইপিএস অনেক বেড়েছে। নতুন সপ্তাহে আবারো আলোর ঝলক ছড়াবে বলে অনেকে জানিছেন। আরো জানতে কোম্পানিগুলোর পূর্ণ তালিকা দেখুন।

পেছনের খবর : (অক্টোবর মাসে দর হারানো কোম্পানির তালিকা)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here