দরপতনে বিক্ষোভ, ‘১০ শতাংশ বিনিয়োগ আইন’ দাবি

1
2758
স্টাফ রিপোর্টার : পুঁজিবাজারে সোমবার দরপতন হয়েছে। সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসেও দেশের উভয় বাজারে সূচক কমেছে। টানা ৪র্থ দিন সূচকের পতনে সোমবার দুপুরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সামনে মানববন্ধনে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ।
তারা দাবি করেন, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর পরিশোধিত মূলধনের ২৫ শতাংশ বাতিল করে ফের আমানতের ১০ শতাংশ বিনিয়োগ আইন পুনর্বহাল করতে হবে। এতে পুঁজিবাজার স্থিতিশীল হবে।
দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সাধারণ সূচক ডিএসইএক্স সাড়ে ৪ হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে আসায় এক ধরনের মনস্তাত্ত্বিক চাপ তৈরি হয়েছে। আতঙ্কগ্রস্ত বিনিয়োগকারী অনেকে লোকসানের ভয়ে শেয়ার ছেড়ে দিচ্ছেন। ফলে বিক্রির চাপে বাজারে পতন ঘটেছে -ধারণা অনেকের।
বাজারের ধারাবাহিক দরপতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেন। তাদের দাবি, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর পরিশোধিত মূলধনের ২৫ শতাংশ বাতিল করে ফের আমানতের  পুনর্বহাল করতে হবে। এতে পুঁজিবাজার স্থিতিশীল হবে।

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের ব্যানারে দাঁড়িয়ে তারা বলেন, এখন পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর বাড়তি বিনিয়োগ সীমার মধ্যে নামিয়ে আনার বিষয় নিয়ে বাজারে তারল্য সংকট করা হচ্ছে। এতে বাজার অব্যাহতভাবে পতনের দিকে যাচ্ছে। তবে পুঁজিবাজারের স্টেকহোল্ডার নিয়ে কারো মাথা ব্যথা নেই। বাজারে স্থিতিশীলতা না আসলে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা আরও পুঁজি হারাবে।

তারা বলেন, আগে বাজার ঠিক কর না হলে টাকা ফিরিয়ে দাও। তারা সোমবারও বিএসইসি চেয়ারম্যানসহ গভর্নরের পদত্যাগের দাবিতে স্লোগান দেন।

বিনিয়োগকারীরা বলেন, পুঁজিবাজার স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত প্রাথমিক গণপ্রস্তাব আইপিও বন্ধ রাখতে হবে। এটা বন্ধ না হলে বাজার আরও বেশি খারাপের দিকে যাবে।

মানববন্ধনে অংশ নেন বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজানুর রশিদ চৌধুরী, সেক্রেটারি কাজী আবদুর রাজ্জাক, বিনিয়োগকারী মশিউর রহমান, বাচ্চু, সবুজ, মিজান ও সাজ্জাদ প্রমুখ।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here