তিন বছর পরে ক্যাটাগরি পরিবর্তন করবে ম্যাকসন্স স্পিনিং

2
6857
dav

সিনিয়র রিপোর্টার : তিন বছর পরে ক্যাটাগরি পরিবর্তন করবে মেট্রো গ্রুপের কোম্পানি ম্যাকসন্স স্পিনিংস। ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করলেও পরের বছরে (২০১৫ সাল) থেকে কোনো লভ্যাংশই ঘোষণা করেনি। তবে চলতি বছরে বাণিজ্য বেশ ভালো হওয়ায় কোম্পানির কর্তৃপক্ষ ক্যাটাগরি পরিবর্তন করবে।

EPS, NAV chart

একইসঙ্গে ২০০৯ সালে রাইট শেয়ারে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ারপ্রতি ২৫ টাকা হিসাবে ১৬২ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়। চলতি বছরের শেষে নতুন করে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনে যাচ্ছে। নাম প্রকাশ না করা অনুরোধে কোম্পানি ঊর্ধতন কর্মকর্তারা এমন তথ্য নিশ্চিত করছে।

২০০৮ সালে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে ৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয় ম্যাকসন্স স্পিনিং মিল কোম্পানি। এরপরে ২০০৯ সালে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ ব্যবসা সম্প্রসারণের নামে রাইট শেয়ার ইস্যুর জন্য আবেদন করলে ১৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ (একটি শেয়ারের বিপরিতে দুটি) বিএসইসি অনুমোদন দেয়।

মেট্রো গ্রুপের রিসিভশন

রাজধানীর উত্তরায় (৭ নং রোডে) কোম্পানির নিজস্ব সুদৃশ্য ভবন ম্যাক হাউসে অনেকের সঙ্গে কোম্পানির বিভিন্ন তথ্য নিয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় ঊর্ধতন অনেক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ করে বলেন, কোম্পানির যে পরিমাণ (২৩ পয়সা) ইপিএস (শেয়ারপ্রতি আয়) রয়েছে তাতে ৫ পারসেন্ট ডিভিডেন্ড ঘোষণা করা যায়। কোম্পানির কর্তৃপক্ষ সে লক্ষ্ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। তবে এবারে তারা দুটি কোম্পানি থেকে আপাতত ম্যাকসন্স কোম্পানির ক্যাটাগরি চেঞ্জ করতে চায়।

আরো তথ্য জানতে কথা হয় মেট্রো গ্রুপের সিএফও ইউনুস ভূঁইয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, এটি সংবেদনশীল তথ্য, আমরা কোনভাবেই আগে প্রকাশ করতে পারিনা। আমাদের কোম্পানির অটিড চলছে, আশা করা যায়- অক্টোবর মাসে বোর্ড মিটিং এবং নভেম্বর মাসে এজিএম করা হবে। তবে আমাদের সামথ্য অনুযায়ী দেয়ার চেষ্টা করবো। সাক্ষাৎকালে উভয় কোম্পানির শেয়ার ডিভিশনের ঊর্ধতন কর্মকর্তারাও ছিলেন।

‘আমাদের সকল তথ্য ডিসইর মাধ্যমে প্রকাশ করি। আর কোন মূল্য সংবদনশীল তথ্য থাকলে অবশ্যই তা প্রকাশ করা হবে। বিনিয়োগকারীদর আমরা জানাব’

অফিসে মেট্রো গ্রুপের চেয়ারম্যান ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ আলী খোকনের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে জানা গেছে তারা দেশের বাইরে অবস্থান করছেন।

পরিদরশনকালে বৃহস্পতিবার সুদৃশ্য ভবনের রিসিপশনে দেখা গেছে, কোম্পানির বাণিজ্য নিয়ে অনেক কোম্পানির লোক বিভিন্ন মালামাল ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে আলাপ করতে আসছেন। ঊর্ধতন কর্মকর্তারা রিসিভশনে বসে তাদের প্রয়োজনীয় আলাপ সেরে নিচ্ছেন। করপোরেট কালচারের অফিসে অনেকের পদচারণায় গমগম করছে। কর্ম ব্যস্থতায় সময় পার করছেন কর্মকর্তারা।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, কোম্পানির বাণিজ্য সম্প্রসারণ এবং উৎপাদন বৃদ্ধিতে কয়েক মাস আগে রাজধানীর দিলকুশা এলাকা থেকে গ্রুপের মূল অফিস উত্তরায় সরিয়ে নেয়া হয়। বর্তমানে ২৮ দিলকুলায় অফিস থাকলেও গুটি কয়েকজন লোক আছে। গ্রুপ অব কোম্পানির নামে ঝুলানো হয়েছে নতুন ঠিকানা। তবে জয়েনস্টক এবং ডিসই-সিএসই অনুমোদিত ঠিকানা হওয়ায় এখনো ছাড়তে পারেনি মেট্রো গ্রুপ অব কোম্পানির কতৃপক্ষ।

বিশেষ সূত্র আরো জানায়, কোম্পানির কর্তৃপক্ষ এবারে ২৩ পয়সা শেয়ার প্রতি আয় নিয়ে ক্যাটাগরি পরিবর্তনের চিন্তা করছে। কারণ, গত ৩ বছরে ব্যবসা বিশেষ একটা ব্যবসা করতে পারেনি। চলতি বছরে তুলনামূলক অনেকটা ভালো হয়েছে, যে কারণে আভাস মিলেছে।

দিলকুয়ায় মেট্রো গ্রুপের অফিস ঠিকানা

ডিএসই থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, ২০০৮ সালে তালিকাভুক্তির পরে ম্যাকসন্স স্পিনিং ১৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। পরের বছর লভ্যাংশের পরিমাণ বেড়ে হয় ২০ শতাংশ। ২০১০ সালে রাইট ইস্যুর বছরে লভ্যাংশ দেওয়া হয় ২৫ শতাংশ।

২০১১ সালে লভ্যাংশ ১৫ শতাংশে নেমে আসে। পরের বছর ২০১২ সালে তা হয় ৫ শতাংশ। এরপরে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ৫ শতাংশ হারে লভ্যাংশ দেয় কোম্পানি। পরের বছর ২০১৫ সাল থেকে কোনো লভ্যাংশই ঘোষণা করেনি কোম্পানিটি।

রাজধানীর উত্তরায় (৭ নং রোডে) কোম্পানির নিজস্ব সুদৃশ্য ভবন ম্যাক হাউস

বর্তমানে কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ২২৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

(উৎপাদন বৃদ্ধির সংবাদ আগামী সপ্তাহে)

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here