‘তসরিফা একটি গ্রিন সিগন্যাল’

1
3782

সিনিয়র রিপোর্টার : সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদনপ্রাপ্ত তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সিইও মহিম হাসান বলেন, তসরিফা একটি গ্রিন সিগন্যাল। এখানে বিনিয়োগ করে কেউ লভ্যাংশ পাবেন না- এমন হবেনা। কেননা আমাদের লক্ষ্য বহুদুর।

Tasrifa CEOসিইও ফিউচার প্লান সম্পর্কে বলেন, আমাদের কোম্পানিতে একটি গ্রিন ডায়িং ফ্যাক্টরি হবে। এটা বাংলাদেশে আমরাই প্রথম আনছি। এখন আমাদের বাৎসরিক রপ্তানীর  ক্ষমতা রয়েছে ১৪০ কোটি, গ্রিন ডায়িং ফ্যাক্টরি নির্মিত হলে এটা দাঁড়াবে ২৫০ কোটিতে।

গাজীপুরের টঙ্গিতে বুধবার কারখানা পরিদর্শন শেষে সিইও মহিম হাসান গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন। এসময় কোম্পানির ঊর্ধতন অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কারখানা পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, আমরা পূর্বে স্টিল কোম্পানির ব্যবসায় পূর্বে ছিলাম। এখন টেক্সটাইল ব্যবসায় গত ৫০ বছর ধরে সুনামের সঙ্গে আছি, এখন পর্যন্ত কোন ব্যাংকে আমরা ডিফল্ট নই। আল্লার রহমতে এখনো খুব ভালো আছি। তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, এটা আমার মায়ের নামে কোম্পানি। আমার মাকে কেউ গালি দিক, তা আমি কখনো চাইবো না।

গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বিনিয়োগকারীদের অর্থের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে বলেন, স্পিনিং মিলে আগামীতে ইনভেস্ট করার ইচ্ছা আছে। তবে পরবর্তী ২-৩ বছরের মধ্যে নয়।

আইপিওতে আসার সময় অনেক কোম্পানিকে বেশ স্বাস্থ্যবান মনে হয়। তবে আইপিও শেষে কোম্পানিগুলো লভ্যাংশে দেয়ার ক্ষেত্রে শুকিয়ে যায় -এমন রসাত্বক প্রশ্নত্তোরে সিইও বলেন, আমাদের স্বাস্থ্য এমনি ভালো। শুকানোর মতো এখনো আমাদের অবস্থা তৈরি হয়নি।

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পাওয়া তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের আবেদন শুরু হবে আগামী ২৪ মার্চ, মঙ্গলবার। আবেদন চলবে ৩১ মার্চ মঙ্গলবার পর্যন্ত। তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য এই সুযোগ থাকছে ৯ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

বিস্তারিত সাক্ষাতকারের দ্বিতীয় পর্বে তুলে ধরা হবে।

আরো খবর : তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজের ‘আমলনামা’

1 COMMENT

  1. আমরা ইতিমধ্যে খেয়াল করেছি, একটি কোম্পানী বেশ ডাকঢোল বাজিয়ে শেয়ার বাজারে আসে। ছয়মাস নাযাইতেই ফেস ভেলুর গভীর তলানীতে নেমে আসে। এখন কথাহচ্ছে তসরিফা কি বলতে পারবে ২৬ টাকার নীছে আসবেনা?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here