তসরিফার আইপিওতে সাড়ে ১০ গুন আবেদন

0
1254

হোসাইন আকমল : সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে টাকা উত্তোলন সম্পন্ন করেছে তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। চলতি বছরের ২৪ মার্চ, মঙ্গলবার থেকে শুরু করে ৩১ মার্চ, মঙ্গলবার পযর্ন্ত ছিল তসরিফার প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে  আবেদনের সময়সীমা।  তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের জন্য সময় ছিল ৯ এপ্রিল পর্যন্ত। নতুন ও পুরাতন উভয় পদ্ধতিতে পুঁজিবাজার থেকে কোম্পানিটি আইপিও-টাকা উত্তোলন করেছে।

শুরুর দিকে তসরিফার আইপিওতে  আবেদনকারীর তেমন সাড়া না থাকলেও শেষ দিকে অনেকটা সাড়া পড়েছে। এ কোম্পানির আইপিওতে সাধারণ, ক্ষতিগ্রস্ত, মিউচুয়্যাল ফান্ড ও প্রবাসী বাংলাদেশী মিলে চাহিদার প্রায় সাড়ে ১০  গুন (১০.৪৯৫) আবেদন জমা পড়েছে। কোম্পানিটির আইপিওতে ৬৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকার চাহিদার বিপরীতে এ আবেদন জমা পড়েছে।

জানা গেছে, তসরিফার আইপিওতে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক, সিকিউরিটিজ হাউজ, মিউচুয়্যাল ফান্ডের সাধারণ ও ক্ষতিগ্রস্ত এবং প্রবাসী বাংলাদেশি মিলে প্রায় ১২ লাখ ৮৯ হাজার ১ শত ৭২টি আবেদন জমা পড়েছে। টাকার হিসেবে যা দাঁড়িয়েছে ৬৭০ কোটি ৩৬ লাখ ৯৪ হাজার ৪ শত টাকা। এর মধ্যে-

সাধারণ বিনিয়োগকারী : তসরিফার আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীর ৯ লাখ ৯২ হাজার ৭ শত ৩৪ টি আবেদন জমা পড়েছে। টাকার হিসেবে যা দাঁড়িয়েছে ৫১৬ কোটি ২২ লাখ ১৬ হাজার ৮ শত টাকা।

ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারী : এ কোম্পানির আইপিওতে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীর ৯৮ হাজার ৩ শত ১৩ টি আবেদন জমা পড়েছে। টাকার হিসেবে যা দাঁড়িয়েছে ৫১ কোটি ১২ লাখ ২৭ হাজার ৬ শত টাকা।

প্রবাসী বাংলাদেশী : তসরিফার আইপিওতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের ৪১ হাজার ১ শত ৬০ টি আবেদন জমা পড়েছে। টাকার হিসেবে যা দাঁড়িয়েছে ২১ কোটি ৪০ লাখ ৩২ হাজার টাকা।

মিউচুয়্যাল ফান্ড : এ কোম্পানির আইপিওতে মিউচুয়্যাল ফান্ডের মাধ্যমে ১ লাখ ২২ হাজার ৮ শত ৩১ টি আবেদন জমা পড়েছে। অংকে যা দাঁড়িয়েছে ৬৩ কোটি ৮৭ লাখ ২১ হাজার ২ শত টাকা।

সে হিসেবে, তসরিফার আইপিওতে সাধারণ, ক্ষতিগ্রস্ত ও প্রবাসী বাংলাদেশী মিলে প্রায় ১২ লাখ ৮৯ হাজার ১ শত ৭২টি আবেদন জমা পড়েছে। টাকার হিসেবে যা দাঁড়িয়েছে ৬৭০ কোটি ৩৬ লাখ ৯৪ হাজার ৪ শত  টাকা।

এদিকে, শেয়ারবাজারে ২ কোটি ৪৫ লাখ ৬৬ হাজার ২০০টি শেয়ার ছেড়ে  কোম্পানিটি ৬৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা উত্তোলনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আইপিও-তে আসে। এ জন্য ১০ টাকা ফেসভ্যালুর সঙ্গে ১৬ টাকা প্রিমিয়ামসহ প্রতিটি শেয়ারের নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৬ টাকা। মার্কেট লট ২০০টি। অর্থাৎ বিনিয়োগকারীদের প্রতিটি লটের বিপরীতে ৫ হাজার ২০০ টাকা ব্যয় করতে হয়েছে।

লক্ষ্যমাত্রা ৬৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা হলেও তসরিফার আইপিও-তে আবেদন জমা পড়ে ৬৭০ কোটি ৩৬ লাখ ৯৪ হাজার ৪ শত টাকার। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে যা প্রায় সাড়ে ১০  গুন। এমন পরিস্থিতিতে শেয়ারবাজারে ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন বলে প্রত্যাশা করছেন বিনিয়োগকারীরা।

উল্লেখ্য, পুঁজিবাজার থেকে সংগৃহীত অর্থে বর্তমান ব্যবসা সম্প্রসারণ ও আইপিও খাতে ব্যয় করবে  তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ। কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্বে রয়েছে আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড।

Final Status of IPO

Tosrifa Industries Limited: All concerned are hereby informed that the final status of the IPO of Tosrifa Industries Limited is, Total subscription received from General Public=Tk. 5,162,216,800.00, Affected Small Investors=Tk. 511,227,600.00, NRB=Tk. 214,032,000.00 & Mutual Fund=Tk. 816,218,000.00. Total subscription received=Tk. 6,703,694,400.00 against Public Issue of IPO of Tk. 638,721,200.00 which is over subscribed by 10.50 times.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here