স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড ও যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের ১ হাজার কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন দিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বুধবার বিএসইসির ৬৩৭তম কমিশন সভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেডের ৫০০ কোটি টাকা এবং যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের ৫০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদিত হয়েছে। উভয় ব্যাংকের নন-কনভার্টেবল ফ্লোটিং রেট সাবঅর্ডিনেটেড বন্ডের মেয়াদ হবে ৭ বছর।

ঢাকা ব্যাংকের বন্ডটির বৈশিষ্ট্য হচ্ছে- নন কনভারটেবল, সম্পূর্ণ অবসায়নযোগ্য, সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড।

বন্ডটি শুধুমাত্র ব্যাংক, স্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বিমা কোম্পানি, করপোরেট বডি, মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং অন্যান্য যোগ্য বিনিয়োগকারী কিনতে পারবে। বন্ডটি প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে কেনা যাবে।

বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে ব্যাংকটি টায়ার টু ক্যাপিটালের শর্ত পূরণ করবে। বন্ডটির অভিহিত মূল্য ১০ লাখ টাকা। বন্ডের ট্রাস্টি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড এবং এবং ম্যান্ডাটেড লিড অ্যারেঞ্জার হিসাব কাজ করছে  স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংক।

অন্যদিকে, যমুনা ব্যাংক বন্ডের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে-নন-কনভার্টেবল, ফুললি রিডাম্বেল, কুপন বিয়ারিং, আনসিকিউরড, আনলিস্টেড ও সাবঅর্ডিনেটেড বন্ড।

যমুনা ব্যাংক এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে টায়ার টু ক্যাপিটাল বেজ এর শর্ত পূরণ করবে। যমুনা ব্যাংক নন-কনভার্টেবল কুপন বিয়ারিং সাবঅর্ডিনেট বন্ড এর প্রতিটি ইউনিটের অভিহিত মূল্য ১ কোটি টাকা।

বন্ডের ট্রাস্টি এবং আইডিএলসি ফাইন্যান্স এবং ম্যান্ডাটেড লিড অ্যারেঞ্জার হিসাব কাজ করছে যমুনা ব্যাংক ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here