DSC03382
এম এ কুদ্দুস

মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : সদ্য পদত্যাগ করা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান ছিলেন পুঁজিবাজার বিরোধী। ক্যাপিটাল মার্কেটের উত্থান ও পতনের জন্য আতিউর রহমান দায়ী। তিনি পদত্যাগ করায় পুঁজিবাজারের অবস্থা ভবিষ্যতে ভালো না হলেও খারাপ হবে না।

ডেইলি স্টক বাংলাদেশকে সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাতকারে আনোয়ার ব্রোকারেজ হাউজের বিনিয়োগকারী এম এ কুদ্দুস এসব কথা বলেন।

কারণ উল্লেখ করে কুদ্দুস বলেন, ২০০৯-২০১০ অর্থবছরে ব্যাংকগুলো হাজার হাজার কোটি টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেছে। তখন সূচক বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ৯ হাজার থেকে সাড়ে ৯ হাজার।  তখন গভর্নর আতিউর রহমান বিষয়টি জানলেও কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়নি। যে কারণে ধ্বস।

তিনি বলেন, ব্যাংকগুলো এরকম বেপোরোয়াভাবে বিনিয়োগ যদি না করতো তবে সূচক হতো ৫ হাজার থেকে সাড়ে ৫ হাজার। এরপর ২০১০ সালে তিনি চাপ দিলেন সূচক যেন স্বাভাবিক থাকে। ফলে সূচক কমতে শুরু করে। সে সময় হাজার হাজার বিনিয়োগকারী ক্ষতিগ্রস্ত হন।

বর্তমান বাজার ব্যবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, বর্তমানে সূচক বাড়া-কমার মধ্যে রয়েছে। ক্যাপিটাল মার্কেটে নতুন করে ইনভেস্টমেন্ট হচ্ছে না। ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ নেই বললেই চলে। বড় বড় আর্থিক কোম্পানিগুলো বাজারে আসছে না। ট্রেডাররা লসে শেয়ার বিক্রি করে মার্কেট ত্যাগ করছেন। কিন্তু কেন?

এম এ কুদ্দুস বলেন, পুঁজিবাজারে নতুন আইপিও আসছে। যা সাধারণ বিনিয়োগকারিদের বিভ্রান্ত করছে। নতুন নতুন আইপিও বাজারকে অস্থির করে তোলে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানলেও সে ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে তিনি অভিযোগ করেন।

সম্প্রতি পুঁজিবাজারের উন্নয়নে অর্থমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের পর সাধারণ বিনিয়োগকারিদের মনে কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে। আর এই স্বস্তি পুরাপুরি তখনই আসবে যখন তার বক্তব্যের বাস্তব প্রতিফলন ঘটবে। অর্থমন্ত্রীর বক্তব্য ও আতিউরের পদত্যাগের বিষয়টিকে ইতিবাচক দিক হিসেবে সাধারণ বিনিয়োগকারী দেখছেন।

এমন মন্তব্য তিনি স্টক বাংলাদেশের এই প্রতিবেদকের কাছে করেন।

2 COMMENTS

anis শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here