এবার পরামর্শদাতা মনসুর!

0
319
Dse Logoস্টাফ রিপোর্টার : ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে শেয়ারের ব্যাপক দর পতন হয়েছে। পতন কেলেঙ্কারির মধ্যে একজন ও ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের পরামর্শদাতা হচ্ছেন মনসুর আলম। তিনি পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাবেক সদস্য।
ইতোমধ্যে  তিনি দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মালিকানা থেকে ব্যবস্থাপনাকে পৃথকিকরণ (ডিমিউচুয়ালাইজেশন) কাজে পরামর্শক হিসেবে কাজ করেছেন। আর ডিমিউচুয়ালাইজেশনের জন্য ডিএসই নিযুক্ত মার্চেন্ট ব্যাংক রয়েল গ্রিন ক্যাপিটাল মার্কেট লিমিটেড মনসুর আলমকে এ কাজে নিযুক্ত করেছে।

ডিএসইর সাবেক সভাপতি আবদুল হকের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান রয়েল গ্রিন ক্যাপিটাল ডিমিউচুয়ালাইজেশনের কাজের জন্য নির্বাচিত হওয়ার পর এ বিষয়ে মনসুর আলমকে পরামর্শক নিয়োগ দেন। নিজের প্রতিষ্ঠানের বাইরে থেকে (আউটসোর্সিং) বিশেষজ্ঞ হিসেবে তাঁকে নিযুক্ত করা হয়। তাঁরই পরামর্শে ডিমিউচুয়ালাইজেশন-সংক্রান্ত নথিপত্র ডিএসইতে জমা দেয় রয়েল গ্রিন ক্যাপিটাল।

মনসুর আলম ছাড়াও রয়েল গ্রিন ক্যাপিটালের সঙ্গে এ কাজে যুক্ত ছিল ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ফিন্যান্সিয়াল টেকনোলজি নলেজ ম্যানেজমেন্টের একাধিক বিশেষজ্ঞ। ডিএসইর একাধিক কর্মকর্তা মনসুর আলমের সম্পৃক্ততার বিষয়টির নিশ্চিত করেছেন।

জানতে চাইলে ডিএসইর সভাপতি আহসানুল ইসলাম  বলেন, ডিমিউচুয়ালাইজেশন কাজে ডিএসইর সঙ্গে মনসুর আলমের সরাসরি কোনো সম্পৃক্ততা নেই। ডিএসই কর্তৃপক্ষ তাঁর কাছ থেকে কোনো ধরনের মতামত গ্রহণ করেনি। রয়েল গ্রিনের পক্ষ থেকে উনাকে পরামর্শক হিসেবে রাখা হলেও এ বিষয়ে আমরা তাঁর কোনো পরামর্শ গ্রহণ করিনি।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে রয়েল গ্রিন ক্যাপিটালের অন্যতম স্বত্বাধিকারী ও ডিএসইর সাবেক সভাপতি আবদুল হক বলেন, শুরুতে পরামর্শক হিসেবে মনসুর আলমের নাম ছিল। আসলে মূল কাজটি আমরা করেছি ভারতীয় একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে।’

জানা গেছে, রয়েল গ্রিন ক্যাপিটালের পক্ষ থেকে মনসুর আলমকে পরামর্শক নিয়োগ করা হলে ডিএসইর ভেতরে সমালোচনা শুরু হয়। একপর্যায়ে ডিএসইর পক্ষ থেকে এ কাজের সঙ্গে মনসুর আলমকে সরাসরি যুক্ত না রাখারও পরামর্শ দেওয়া হয়। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির পক্ষ থেকেও অনানুষ্ঠানিকভাবে ডিএসইকে বলা হয়, ডিমিউচুয়ালাইজেশনের কাজের সঙ্গে এমন কোনো ব্যক্তিকে সম্পৃক্ত করা যাবে না, যাঁকে নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালে পুঁজিবাজার ধসের পর সরকার গঠিত তদন্ত কমিটি শেয়ারবাজার কেলেঙ্কারিতে তাঁর সম্পৃক্ততা চিহ্নিত করেছিল। আর সরকারের নির্দেশে তাঁর বিরুদ্ধে এখন বিভিন্ন অভিযোগের অধিকতর তদন্ত করছে বিএসইসি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here