ডিএসই প্লেসমেন্ট শেয়ারে ৩ বছরের লক-ইন চায়

0
146

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ইস্যু করা শেয়ারের উপর ৩ বছরের লক-ইন বা বিক্রয় নিষেধাজ্ঞা চায়। কোনো কোম্পানি প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বাজারে আসার আগে প্লেসমেন্টে শেয়ার ইস্যু করে থাকলে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। এ লক-ইন আরোপ হলে শুধু বিক্রি নয়, ওই শেয়ার ব্যাংকে জামানত রাখা এবং হস্তান্তরও আইপিও পরবর্তী ৩ বছর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বুধবার অনুষ্ঠিত ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে ওই লক-ইনের বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে একটি প্রস্তাব পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রস্তাবে ডিএসই প্লেসমেন্ট শেয়ারের পাশাপাশি প্লেসমেন্ট শেয়ারের বিপরীতে প্রাপ্ত বোনাস শেয়ারের ওপরও তিন বছরের লক-ইন আরোপের অনুরোধ জানাবে।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিএসইর একজন পরিচালক বলেন, প্লেসমেন্টের নামে এক ধরনের অরাজকতা শুরু হয়েছে। কিছু অসাধু উদ্যোক্তা ব্যবসা সম্প্রসারণের প্রয়োজনে নয়, রাতারাতি আরও বড় লোক হওয়ার অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে প্লেসমেন্টে শেয়ার বিক্রি করছে। এসব কোম্পানি পুঁজিবাজারে আইপিওর মাধ্যমে যে পরিমাণ শেয়ার বিক্রি করছে, তারচেয়ে কয়েকগুণ বেশি শেয়ার বিক্রি করছে প্লেসমেন্টের মাধ্যমে। তাদের শেয়ারবাজারে আসার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, প্লেসমেন্টের মাধ্যমে বরাদ্দ শেয়ার বিক্রির সুযোগ করে দেওয়া।

এসব শেয়ার কয়েকগুণ দামে বিক্রি করে তারা কোম্পানির মূল বিনিয়োগ তুল‌ে ন‌েওয়া সহ বিপুল অর্থ হাত‌িয়‌ে ন‌িচ্ছ‌ে। আর দুর্বল মৌলের এসব কোম্পানির শেয়ার শেষ পর্যন্ত সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাঁধে চাপছে। লক-ইনের মেয়াদ বাড়ানো হলে এই ধরনের অপতৎপরতা কিছুটা কমে আসবে।

উল্লেখ, বর্তমানে প্লেসমেন্ট শেয়ারের উপর এক বছরের লক-ইন আছে। কিন্তু ওই শেয়ার থেকে প্রাপ্ত বোনাস শেয়ারে কোনো লক-ইন নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here