ডিএসইতে সূচক ও লেনদেন হ্রাস পেয়েছে

1
1604

মেহেদী আরাফাত : টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস অনুযায়ী মঙ্গলবার ঢাকা শেয়ার বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়- ডিএসইএক্স ইনডেক্স লেনদেনের শুরু থেকেই হ্রাস পেতে থাকে। দিনের শুরুতে কিছুটা ক্রয়চাপ থাকলেও কিছু সময় পর বিক্রয় চাপের ফলে সূচক বেশ নিম্নমুখী হয়ে যায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিক্রয় চাপ আরও প্রবল হতে থাকে এবং দিনশেষে সূচক ৩৬.৭৮ পয়েন্ট হ্রাস পেয়েছে। সূচকের এ দরপতনের ফলে আজকের ক্যান্ডেলস্টিক একটি বিয়ারিশ ক্যান্ডেলস্টিক ছিল। ডিএসই এক্স ইনডেক্স ৩৬.৭৮ পয়েন্ট হ্রাস পেয়ে ৪৫৮৬.৮৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে, যা আগের দিনের তুলনায় ০.৭৯% হ্রাস পেয়েছে।

বর্তমানে ডিএসই এক্স ইনডেক্স এর পরবর্তী সাপোর্ট ৪৪১০ পয়েন্টে এবং রেজিটেন্স ৪৭২৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ বাজারে এম.এফ.আই এর মান ছিল ৬৩.১৭ এবং আল্টিমেট অক্সিলেটরের মান ছিল ৪৪.৬৬। এম.এফ.আই কিছুটা উদ্ধমুখি অবস্থান করছে এবং আল্টিমেট অক্সিলেটর কিছুটা উদ্ধমুখি অবস্থান করছে।

ডিএসইতে ১৮ কোটি ৯১ লাখ ৪৭ হাজার ৭৩৩ টি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়, যার মূল্য ছিল ৭২৫.০০ কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২৭৭ কোটি টাকা। ঢাকা শেয়ারবাজারে ৩১১ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে, যার মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৯ টির, কমেছে ১৯৫ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৭ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।Screenshot_2

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বাজারে চাহিদা কম ছিল ২০-৫০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ৩৬.৩৭% কমেছে। অন্যদিকে হ্রাস পেয়েছে ৫০-১০০ এবং ১০০-৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ২৬.৩৮% এবং ২৪.৫৪% কম। অন্যদিকে ৩০০ কোটি টাকার উপরে পরিশোধিত মুলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমান গতকালের তুলনায় ২৮.২৯% কমেছে।

পিই রেশিও ৪০ এর উপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ১৩% কমেছে। অন্যদিকে পিই রেশিও ২০-৪০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৪২.০৯% কমেছে।

ক্যাটাগরির দিক থেকে পিছিয়ে ছিল ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ১১.৩৩% কম ছিল। কমেছে ‘এ’ এবং ‘বি’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ২৮.১৫% এবং ৩২.৭৫% কম ছিল।

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here