ডিএসইএক্স ইনডেক্স এ শেষ বেলায় চমক

2
2570

মেহেদী আরাফাত : টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস অনুযায়ী মঙ্গলবার ঢাকা শেয়ার বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়- ডিএসইএক্স ইনডেক্স লেনদেনের শুরু থেকেই হ্রাস পেতে থাকে। দিনের শুরুতে ভাল ক্রয়চাপ থাকলেও কিছু সময় পর বিক্রয় চাপের ফলে সূচক নিম্নমুখী হতে থাকে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিক্রয় চাপ বৃদ্ধি পেতে থাকে কিন্তু শেষ দিকে ক্রয় বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং দিনশেষে সূচক ১.৮১ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। সূচকের এ দর বৃদ্ধির ফলে আজকের ক্যান্ডেলস্টিক একটি ডোজি ক্যান্ডেলস্টিক ছিল। এই ডোজি ক্যান্ডেলস্টিক বাজার ভাল হওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে থাকে। লেনেদেনের শীর্ষে থাকা ২০ টি শেয়ারের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৬ টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

TA বিশ্লেষকদের মতে ডোজি ক্যান্ডেলস্টিকটি একটি রিভারসাল ক্যান্ডেলস্টিক হিসেবে কাজ করে থাকে। এর মাধ্যমেও আমরা সম্ভাব্য পরিবর্তনের আভাস পাই। এটি আমরা দেখতে পাই যখন প্রারম্ভিক, সমাপ্তি ও সর্বোনিন্ম মুল্য একই অবস্থানে থাকে এবং সর্বোচ্চ মূল্য প্রারম্ভিক, সমাপ্তি ও সর্বনিন্ম মূল্যের থেকে বেশী থাকে।

বর্তমানে ডিএসই এক্স ইনডেক্স এর পরবর্তী সাপোর্ট ৪৫০০ পয়েন্টে এবং রেজিটেন্স ৪৭১৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ বাজারে এম.এফ.আই এর মান ছিল ৬৪.৬৭ এবং আল্টিমেট অক্সিলেটরের মান ছিল ৪৬.২৪। এম.এফ.আই কিছুটা নিম্নমুখী অবস্থান করছে এবং আল্টিমেট অক্সিলেটর কিছুটা নিম্নমুখী অবস্থান করছে।

ডিএসইতে ১৬ কোটি ৭৮ লাখ ৩৪ হাজার ৪৭৪ টি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়, যার মূল্য ছিল ৫৭৩ কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেন বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৬ কোটি টাকা। ঢাকা শেয়ারবাজারে ৩২১ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে, যার মধ্যে দাম বেড়েছে ১৭১ টির, কমেছে ১১১ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৯ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বাজারে চাহিদা বেশী ছিল ৫০-১০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ১৮.১৫% বেড়েছে। অন্যদিকে হ্রাস পেয়েছে ০-২০ এবং ২০-৫০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ১৫.০৪% এবং ১৯.০১% কম। অন্যদিকে ৩০০ কোটি টাকার উপরে পরিশোধিত মুলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমান গতকালের তুলনায় ১৫.৩৪% কমেছে।

পিই রেশিও ৪০ এর উপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৬.৮৭% কমেছে। অন্যদিকে পিই রেশিও ২০-৪০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৭.২৯% বেড়েছে।

ক্যাটাগরির দিক থেকে এগিয়ে ছিল ‘বি’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ২৬.৮% বেশী ছিল। বেড়েছে  ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ৪.২৩% বেশী ছিল।

2 COMMENTS

  1. লাগাতার শেয়ার দাম কমছে RANFOUNDARY. বাংলাদেশ DSE , SEC কর্তৃপক্ষ নীরব দর্শক। শেয়ার দাম যখন বেড়ে ১২৪ টাকা হলো
    তখন থেকে কমে ১০৭ টাকায় নেমে আসে I কিন্ত এতে করে আমাদের মত ক্ষুদ্র বিনীয়গকারী সর্বশান্ত হয়ে পড়ছে I অন্যদিকে লাগাতার বাড়ছে কতিপয় শেয়ারের দাম I তাহলে কি DSE , SEC কর্তৃপক্ষ এতে জড়িত নয়????

    কেন কমছে কিংবা কেন বাড়ছে তার কি কোনো জবাব আছে I কারা কমা – বাড়ার সাথে জড়িত ????

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here