ডিএসইএক্স ইনডেক্স এ নতুন রেকর্ড

0
2326

মেহেদী আরাফাত : টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস অনুযায়ী সোমবার ঢাকা শেয়ার বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়- ডিএসইএক্স ইনডেক্স লেনদেনের শুরু থেকেই হ্রাস পেতে থাকে। দিনের শুরুতে কিছুটা ক্রয়চাপ থাকলেও কিছু সময় পর বিক্রয় চাপের ফলে সূচক বেশ নিম্নমুখী হয়ে যায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিক্রয় চাপ আরও প্রবল হতে থাকে এবং দিনশেষে সূচক ৮৭.৫৪ পয়েন্ট হ্রাস পেয়েছে। সূচকের এ দরপতনের ফলে আজকের ক্যান্ডেলস্টিক একটি বিয়ারিশ ক্যান্ডেলস্টিক ছিল। এই বিয়ারিশ ক্যান্ডেলস্টিক বাজারের বিক্রয় চাপ প্রকাশ করছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা যাচ্ছে, ডিএসই এক্স ইনডেক্স তার সাপোর্ট লেভেল ৪০০০ কে ভেঙ্গে নিচের দিকে যাচ্ছে। TA বিস্লেশকদের কাছে ‘RSI’ একটি জনপ্রিয় ইনডিকেটর। আজকের বাজার পতনের মধ্য দিয়ে ডিএসইএক্স ইনডেক্স এর ‘RSI’ নতুন রেকর্ড করলো, এর আগে ‘RSI’ এর সর্বনিম্ন মান ছিল ২১ পয়েন্ট। আজ দিনশেষে ডিএসইএক্স ইনডেক্স এর ‘RSI’ মান এসে দাঁড়িয়েছে ১৬.৯৪ পয়েন্টে । ডিএসইএক্স ইনডেক্স এর ‘RSI’ ৩০ পয়েন্ট এর নিচে নেমেছিল এই পর্যন্ত মোট ৮ বার, তারপর খুব অল্প সময়ের মধ্যে মার্কেট ঘুরে দাঁড়িয়েছিল। এই হিসাবে TA বিস্লেশকরা ধারনা করছেন মার্কেট যে কোন সময়ে ভালভাবে ঘুরে দাড়াতে পারে।

বর্তমানে ডিএসই এক্স ইনডেক্স এর পরবর্তী সাপোর্ট ৩৯১৫ পয়েন্টে এবং রেজিটেন্স ৪১৪২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ বাজারে এম.এফ.আই এর মান ছিল ১৬.৯৩ এবং আল্টিমেট অক্সিলেটরের মান ছিল ২৩.৮৮। এম.এফ.আই কিছুটা নিম্নমুখী অবস্থান করছে এবং আল্টিমেট অক্সিলেটর কিছুটা নিম্নমুখী অবস্থান করছে।Screenshot_1

ডিএসইতে ৮ কোটি ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৫২৬ টি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়, যার মূল্য ছিল ৩৩০.৪৪ কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৬১ কোটি টাকা। ঢাকা শেয়ারবাজারে ৩০৫ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে, যার মধ্যে দাম বেড়েছে ৬৮ টির, কমেছে ২১৮ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৯ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বাজারে চাহিদা কম ছিল ০-২০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ২৯.০৩% কমেছে। অন্যদিকে কমেছে ২০-৫০ এবং ৩০০ কোটি টাকার উপরে পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় ২৮.৫৫% এবং ৮.৫৯% কম। অন্যদিকে ১০০-৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মুলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমান গতকালের তুলনায় ১৪.৪৬% কমেছে।

পিই রেশিও ৪০ এর উপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ৩২.৭৪% কমেছে। অন্যদিকে পিই রেশিও ২০-৪০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ১২.৬৬% কমেছে।

ক্যাটাগরির দিক থেকে এগিয়ে ছিল ‘জেড’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ২১.১১% বেশী ছিল। কমেছে ‘এ’ এবং ‘জেড’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় ১৪.১১% এবং ৪৮.৯২% কম ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here