টেক্সটাইল খাত ইতিবাচক

0
420

মোহাম্মাদ মুশফিকুর রহমান :  টেক্সটাইল খাতের সাথে বিনিয়োগকারীদের সম্পৃক্ততা সবচেয়ে এখন সবচেয়ে বেশী। ব্যক্তি বিনিয়োগকারীদের সাথে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরাও সমানভাবে সম্পৃক্ত আছে এই খাতের শেয়ারের সাথে। নতুন বছরেও টেক্সটাইল খাতের প্রধান্য ছিল চোখে পড়ার মত।

প্রতিবারের মত এবারও বছরের প্রথম দিনে টেক্সটাইল খাত লেনদেনের শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, গতবারের ন্যায় এবার ও টেক্সটাইল খাতে রপ্তানি বেশী হওয়ায় টেক্সটাইল খাতে থাকা কোম্পানিগুলোর আয় বাড়বে । এ জন্য এই খাতে শেয়ার মুল্যের ব্যাপক পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে।

গত ছয় মাসে টেক্সটাইল খাতের সাথে আছেন, এমন খুব কম বিনিয়োগকারীই লোকসানের মুখ দেখেছেন। যে কারনে একটি কোম্পানি থেকে মুনাফা নিয়ে আবার অন্যটির সাথে সম্পৃক্ত হচ্ছেন তারা। আর এতে বাজারে বাড়ছে টেক্সটাইল খাতের লেনদেন।

গত ছয় মাসে বাজারে প্রভাব বিস্তার করা সবচেয়ে বেশী কোম্পানি ছিল টেক্সটাই্ল খাতের। এসব কোম্পানির এখনও লেনদেন বাড়ছে। আর মাঝে-মধ্যেই বাড়ছে দামও।

bank - 20

গত সপ্তাহে লেনদেনে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ফাইন্যান্স খাত বিগত কয়েকদিন যাবত ফাইন্যান্স খাতের কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা অব্যহত ছিল

গত সপ্তাহে টেক্সটাইল খাতে  মোট  লেনদেনের পরিমান ছিল ৯০৩.৪১ কোটি টাকা যা আগের দিনের তুলনায় ১৯৪.৪০ কোটি টাকা বেশী । এই খাতে লেনদেন হওয়া ২৯ টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৫ টির এবং কমেছে ১২ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩ টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

এই খাতে সর্বাধিক বৃদ্ধি পাওয়া শেয়ার ছিল  প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল লি. যা ৪.৮৪% হারে বৃদ্ধি পায়। অন্যদিকে এই খাতে সর্বাধিক হ্রাস পাওয়া শেয়ার ছিল আর এন স্পিন এবং এই শেয়ারটি ৩৩.৩ টাকায় লেনদেন সমাপ্ত করে যা আগের দিনের তুলনায় ৯.৭৬% কম ।  ডি.এস.ইতে মোট লেনদেনে এই খাতের অবদান ছিল ২২.২% যা গত দিনের তুলনায় ৩.৩৯% বেশী ।

ফাইন্যান্স খাতে মোট  লেনদেনের পরিমান ছিল ৭৩২.৩৩ কোটি টাকা যা আগের দিনের তুলনায় ৯০.৭৭ কোটি টাকা বেশী। গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া ২৩ টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৫ টি কমেছে ৭ টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। এই খাতে সর্বাধিক বৃদ্ধি পাওয়া শেয়ার ছিল আইডিএলসি এবং এই শেয়ারটি ৬৮.১ টাকায় লেনদেন সমাপ্ত করে যা আগের দিনের তুলনায় ৮.২৭% বেশী।

অন্যদিকে এই খাতে সর্বাধিক হ্রাস পাওয়া শেয়ার ছিল মাইডাসফাইন্যান্স এবং এই শেয়ারটি ৩৫.৩ টাকায় লেনদেন সমাপ্ত করে যা আগের দিনের তুলনায় ৯.০২% কম। ডি.এস.ইতে মোট লেনদেনে এই খাতের অবদান ছিল ১৮% যা আগের দিনের তুলনায় ০.৯৭% বেশী ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here