টিএসি নয়, ‘ইউনাইটেড এয়ারই উড়বে’: এমডি

0
8070

শাহীনুর ইসলাম : টিএসি এভিয়েশন নিয়ে গুজব ছড়ানো হয়েছে। টিএসি এভিয়েশন নয়, ইউনাইটেড এয়ারই নতুন রুপে আকাশে উড়বে। টিএসি নিয়ে যে নেতিবাচক বক্তব্য বা গুজব ছড়ানো হচ্ছে- তা সঠিক নয়। নতুন বছরের নতুন দিনে ইউনাইটেড এয়ারই উড়বে।

‘নতুন রুপে’ বিমান উড্ডয়নের এমন সম্ভাবনার তথ্য নিশ্চিত করেন ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের ফাউন্ডার চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আমিন চৌধুরী।

tsc avation
টিএসই এভিয়েশনে ক্যাপ্টেন তাফসিরুল আমিন

তিনি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, টিএসি এভিয়েশনে আমি সিইও হিসেবে কাজ করছি। আর ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের আমি ফাউন্ডার চেয়ারম্যান। এটি একটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি। ইউনাইটেডের এয়ার থেকে উত্তোলিত টাকা বা বিমান কোনভাবেই টিএসিতে নেয়ার সুযোগ নেই। নিন্দুকেরা নেতিবাচক যেসব মন্তব্য করছেন তারও কোন ভিত্তি নেই।

টিএসির ‘১২৫ কোটি টাকার ফান্ড’ সংগ্রহ ও ‘চলাচল’ সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা ফান্ড কালেকশন করছি। ইতোমধ্যে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃক্ষের কাছে দেশের অভ্যান্তরীণ রুটে চলাচলের আবেদনও করা হয়েছে। তবে বিমান কর্তৃপক্ষ আমাদের এখন অনুমোদন দিলেও টিএইর বিমান উড়বে ২০১৮ সালে। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ দেশ এবং দেশের বাইরে ফ্লাইট পরিচালনা করে। যে কারণে ইউনাইটেড এয়ারের কোনভাবেই টিএসি এভিয়েশনকে প্রতিদ্বন্দ্বি ভাবার সুযোগ নেই।

‘বিমান ক্রয় এবং এয়ারের উড্ডয়ন’ সম্পর্কে চৌধুরী বলেন, প্রথম ধাপে বিএসইসি ৪০০ কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগের জন্য ইউনাইটেড এয়ারকে অনুমোদন দিয়েছে। অক্টোবরে সব প্রক্রিয়া শেষে টাকা উত্তোলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এখানে ব্যাক্তি নয়, শুধুমাত্র প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীই বিনিয়োগ করবেন।

tsc
টিএসই এভিয়েশন লোগো

রাজধানীর উত্তরায় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ (বিডি) লিমিটেডের অফিসে বুধবার ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আমিন চৌধুরীর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে উঠে আসে কোম্পানির বর্তমান ও আগামীর বিভিন্ন সম্ভাবনার চিত্র।

সাক্ষাৎকালে টিএসি এভিয়েশন নিয়ে বিনিয়োগকারীদের ‘দ্বিধা-দ্বন্দ্ব’ সম্পর্কে তিনি বলেন, টিএসি এভিয়েশনের ৫টি বিমান রয়েছে। এটি সিলেটে মূলত পাইলট প্রশিক্ষণের কাজে পরিচালিত হচ্ছে। তবে এটি কখনো ইউনাইটেড এয়ারের প্রতিদ্বন্দ্বি হবে না।

Moinuddin Khan Badal
মঈনুদ্দিন খান বাদল

দেশের বেসরকারি বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোর মতো টিএসই নতুন দিগন্তের সৃষ্টি করবে। এর চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন চট্টগ্রামের সংসদ সদস্য মঈনুদ্দিন খান বাদল।

‘নতুন বছরে বিমান উড্ডয়নের সম্ভাবনা’ এবং ‘বিনিয়োগকারীদের আশ্বস্থ’ করে তিনি বলেন, পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রণ কমিশন আমাদের ৪০০ কোটি টাকা বিদেশি বিনিয়োগের অনুমোদন দিয়েছে। আশা করছি, অক্টোবরে টাকা উত্তোলনের দিনক্ষণ চূড়ান্ত হবে। তবে এখানে ব্যাক্তি বিনিয়োগ নয়, শুধুমাত্র প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীই আবেদন করতে পারবেন।

আগামী বছরের প্রথমে (জানুয়ারি) নতুন রপে বিমান ‌উড্ডয়নের আভাস দেন এমডি।

প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ লিমিটেড ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৪০ কোটি ৮০ লাখ টাকার শেয়ার ইস্যু করবে। একইসঙ্গে ২২৪ কোটি টাকার বন্ড (ঋণ) মিলে ৬২০ কোটি ৮০ লাখ টাকার অনুমোদন দিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের শেয়ার ‘এ’ থেকে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে লেনদেন ৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়। এর আগেে আর্থিক সংকটে চলতি বছরের ৫ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে ১২ টি বিমানের ফ্লাইট উড্ডয়ন বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। ফ্লাইট ব্যবস্থাপনায় ১১টি দেশের অফিস স্থগিত ও কর্মীদের ‘বাধ্যতামূলক ছুটি’ প্রদান করা হয়েছে।

‘ফ্লাইট বন্ধ ও বাধ্যতামূলক ছুটি’ সম্পর্কে কোম্পানির ব্যয় সংকোচনকে শ্রেয় বলে মনে করেন ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আমিন চৌধুরী। তিনি বলেন, বিপুল পরিমাণ ব্যয় বহন করার সক্ষমতা কোম্পানির নেই। তবে শর্তসাপেক্ষে যেসব কর্মীকে ছুটি দেয়া হয়েছে, ব্যবসা শুরু হলে তারা ফিরে আসতেও পারেন।

বিমান পরিচালনার জন্য ‘নতুন কর্মী নিয়োগ’ এর কথা জানিয়ে তিনি বলেন, জুন মাসে আমরা একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছি। ইতেমধ্যে ৩০ হাজার আবেদনপত্র জমা পড়েছে। আগামী নভেম্বরে আমরা তাদের নিয়োগের জন্য ব্যবস্থা নেব।

tsc avation.2
টিএসসির পাইলট প্রশিক্ষণ বিমান

কোম্পানির শেয়ার ‘এ’ থেকে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে স্থ‍ানান্তরের কারণ সম্পর্কে তিনি ব্যবসা না থাকা এবং কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ না করাকে ‍দায়ি করেন।

একইসঙ্গে বিনিযোগকারীদের বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে এবং আশার সঞ্জার করে তিনি কোম্পানির ক্যাটাগারী উন্নতকরণ সম্পর্কে বলেন, ব্যবসা চালু হলে আবার ‘এ’ ক্যাটাগরীতে ফিরে আসতে ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আমিনের বেশি সময় লাগবে না।

তবে টিএসি নয়, ইউনাইটেড এয়ারই উড়বে, আগে।

টিএসি এভিয়েশন সম্পর্কে একইমত প্রকাশ করেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রশাসনিক পরিচালক ও উইং কমান্ডার (অব.) মোহাম্মদ ফেরদৌস ইমাম। তিনি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ লিমিটেড এবং টিএসি দুটি ভিন্ন ধারার প্রতিষ্ঠান।

Caten tafsirul amin 21.09.16 (1)
ক্যাপ্টেন তাসবিরুল আমিন চৌধুরীর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাতকারে স্টক বাংলাদেশের প্রতিনিধি

ইউনাইটেড এয়ারের নির্ধারিত বিমান ভাড়ায় টিএসসিতে নেয়ার কোন সুযোগ নেই, এমন ভাবনাও ভুল। তবে বাংলাদেশের অভ্যান্তরীণ রুটে যে মেজাজে টিএসসি আসতে চায় তা দেশে নতুন মাত্রার যোগ করবে। স্বল্প টাকায় এবং অল্প দুরত্বের ক্ষেত্রে বিদেশের মতো বাংলাদেশে যাত্রী পরিবহন চালু করলে তা হবে নতুন সূর্যোদয়।

বাংলাদেশের অভ্যান্তরীণ রুটে টিএসসি এভিয়েশনের ‘চলাচলের অনুমোদন’ সম্পর্কে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) প্রশাসনিক কর্মকর্তা মি. রেজাউল বলেন, আবেদনপত্রটি অনেক দিন ধরে ‍অনুমোদনের অপেক্ষা রয়েছে।

Caten tafsirul amin 21.09.16 (3)
স্টক বাংলাদেশকে বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করছেন এমডি

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানায়, অভ্যান্তরীণ রুটে ২০০১ সালে মাত্র ২ লাখ বিমান যাত্রী ছিল। বর্তমানে সে সংখ্যা ৭ লাখে দাঁড়িয়েছে। প্রতি বছর যাত্রী প্রবৃদ্ধির হার ১০ থেকে ১২ শতাংশ। হযরত শাহ জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে ২০০৯ সালে অভ্যান্তরীণ বিমান যাত্রীর সংখ্যা ছিল ৫ লাখ ৯৬ হাজার ৬১৭ জন।

২০১০ সালে তা বেড়ে হয়েছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৩৩ জন। ২০১১ সালে ৫ লাখ ২৭ হাজার ৯৫০ জন, ২০১২ সালে ৫ লাখ ৮৯ হাজার ১০৮ জন এবং ২০১৩ সালে তা বেড়ে হয়েছে ৬ লাখ ৪৮ হাজার ১৯ জন।

আরো তথ্য জানতে দেখুন টিএসির ওয়েবসাইট

(দ্বিতীয় পর্বে থাকছে- কোম্পানির ভবন নির্মাণ, কতটি এয়ারবাস ক্রয়, এয়ারের ব্যর্থতা, কোম্পানির ঋণ এবং সফলতার বিভিন্ন তথ্য)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here