টাওয়ার শেয়ারিংয়ের ব্যবসা পাচ্ছে ৪ কোম্পানি

0
1334

সিনিয়র রিপোর্টার : একই টাওয়ার বিভিন্ন মোবাইল ফোন অপারেটরের মধ্যে ভাড়া দিয়ে ব্যবসা পরিচালনার লাইসেন্স পাচ্ছে ৪ প্রতিষ্ঠান। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি টাওয়ার শেয়ারিংয়ের জন্য গত ৫ আগস্ট অনুষ্ঠিত এক সভায় ইডটকো বাংলাদেশ, টিএএসসি সামিট টাওয়ার, আইএসওএন টাওয়ার বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড ও এবি হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেড নামে প্রতিষ্ঠানগুলোকে মনোনীত করে।

গত জানুয়ারি মাসে টাওয়ার শেয়ারিং গাইডলাইন জারি করে আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদন চেয়েছিল সংস্থাটি।

টাওয়ার শেয়ারিং চালু হলে মোবাইল ফোন অপারেটদের আর একই এলাকায় আলাদা আলাদা বেস টাওয়ার স্টেশন বা বিটিএস নির্মাণ করতে হবে না। কভারেজের আওতায় থাকা টাওয়ারগুলো সব ফোন অপারেটরাই ব্যবহার করতে পারবে। এতে প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালন খরচ কমার পাশাপাশি শৃঙ্খলাও ফিরবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, আবেদন করা ৮ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সব চেয়ে বেশি নম্বর পেয়ে যোগ্যতাক্রমে প্রথম হয় ইডটকো বাংলাদেশ। আজিয়াটা বারহাদ গ্রুপের একক মালিকানাধীন টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবা প্রদানকারী সাবসিডিয়ারি কোম্পানি ইডটকো।

দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে টিএএসসি সামিট টাওয়ার। এর স্থানীয় অংশীদার সামিট কমিউনিকেশন লিমিটেড এবং বিদেশি অংশীদার টিএএসসি টাওয়ার এবং গ্লোবাল হোল্ডিং করপোরেশন লিমিটেড। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে আইএসওএন টাওয়ার বাংলাদেশ লিমিটেড ও এবি হাইটেক কনসোর্টিয়াম লিমিটেড রয়েছে ৪র্থ স্থানে।

বর্তমানে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটকসহ ৪টি অপারেটরের মোবাইল ফোনের টাওয়ারের সংখ্যা ৩০ হাজারের বেশি। নীতিমালা অনুযায়ী, এগুলো পরিচালনার জন্য আলাদা কোম্পানি হবে। অপারেটরদের টাওয়ার এদের কাছে লিজ বা বিক্রি করা হবে।

অপারেটররা ইচ্ছা করলেই টাওয়ার শেয়ার করতে পারবে না, লাইসেন্সপ্রাপ্ত কোম্পানিগুলো তা করবে। লাইসেন্সের জন্য ৫০ কোটি টাকা ফি ধরা হয়েছে। বার্ষিক নবায়ন ফি ৫ কোটি টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here