ঝুঁকিপূর্ণ কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ছে

0
1315

ডেস্ক রিপোর্ট : মূল্য আয় অনুপাতের (পিই রেশিও) হিসাবে ঝুঁকিপূর্ণ কোম্পানির শেয়ারগুলোর দর বেড়েছে সোমবার। দর বাড়ার তালিকার প্রথম ১০টি কোম্পানির মধ্যে ৮টির পিই রেশিও ঝুঁকিপূর্ণ। এর মধ্যে ৪০-এর উপরে রয়েছে ৪টি এবং ঋণাত্মক পিইতে রয়েছে ৪টি কোম্পানি। এর মধ্যে অধিকাংশ কোম্পানি দুর্বল মৌলভিত্তির।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দর বাড়ার শীর্ষ-১০ তালিকার মধ্যে রয়েছে যথাক্রমে কাশেম ড্রাইসেলস, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, আজিজ পাইপস, ‍প্রিমিয়ার লিজিং, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক, দুলামিয়া কটন, সমতা লেদার, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট, বিআইএফসি ও শ্যামপুর সুগার।

সোমবার কাশেম ড্রাইসেলসের শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৯৫ শতাংশ বা ৬.২ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৩৬ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ২৭.৬২।

আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৮৮ শতাংশ বা ৩.৩ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১৩ কোটি ২০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ৪৩.৬৯ টাকা।

আজিজ পাইপসের শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৬৯ শতাংশ বা ২.২ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৪ কোটি ৯০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ঋণাত্মক।

প্রিমিয়ার লিজিংয়ের শেয়ার দর বেড়েছে ৯.৩৮ শতাংশ বা ০.৯ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১০৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ১৩০।

মেঘনা কনডেন্সড মিল্কের শেয়ার দর বেড়েছে ৯.০৯ শতাংশ বা ০.৭ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১৬ কোটি টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ঋণাত্মক।

দুলামিয়া কটনের শেয়ার দর বেড়েছে ৮.৭০ শতাংশ বা ০.৬ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ঋণাত্মক।

সমতা লেদারের শেয়ার দর বেড়েছে ৮.৪৯ শতাংশ বা ১.৮ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১০ কোটি ৩০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ২৮১.২৫ টাকা।

সামিট এ্যালায়েন্স পোর্টের শেয়ার দর বেড়েছে ৭.৭২ শতাংশ বা ৬ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ১৬৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ৯৪.৭৭।

বিআইএফসির শেয়ার দর বেড়েছে ৬.৭৪ শতাংশ বা ১.১ টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ১২.৭৪ এবং শ্যামপুর সুগারের শেয়ার দর বেড়েছে ৪.৯৪ শতাংশ বা ০.৪ টাকা। এ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৫ কোটি টাকা। এ শেয়ারের পিই রেশিও ঋণাত্মক।

কয়েকজন অভিজ্ঞ বিনিয়োগকারীর সঙ্গে আলাপকালে তারা বলেন, এত বেশি পিই রেশিও এবং কম পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ার বিষয়টি ভাল নয়। কয়েক দিন আগে বড় মূলধনী কোম্পানির শেয়ার দর বাড়িয়ে বাজার ঊর্ধ্বমুখী রাখা হয়েছে। এবার ছোটগুলো ধরা হয়েছে। পুঁজিবাজারের সঙ্গে জড়িত অনেক চক্র ঝুঁকিপূর্ণ শেয়ারগুলোর দিকে আকৃষ্ট করার জন্য এমনটা করতে পারে বলে তাদের অভিমত। তাই সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সবকিছু বিবেচনা করে বিনিয়োগের পরামর্শ দিয়েছেন অভিজ্ঞ বিনিয়োগকারীরা।

এ ব্যাপারে একটি সিকিউরিটিজ হাউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, দুর্বল মৌলভিত্তি ও মার্জিন অযোগ্য পিইর শেয়ার নিয়ে প্রায় সময়ই কারসাজি হয়। ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করে মুনাফা করার পাঁয়তারা করে অনেকে। তবে সবাইকে দেখেশুনে বিনিয়োগ করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here