ডেস্ক রিপোর্টঃ ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত জীবন বীমা খাতে মোট গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ২৯ লাখ। আগের বছরের ডিসেম্বরে খাতটিতে মোট গ্রাহক সংখ্যা ছিল ১ কোটি ৮৫ লাখ। এ হিসাবে গত এক বছরে খাতটিতে ৪৪ লাখ নতুন গ্রাহক বেড়েছে। নানা অনিয়ম, বিশৃঙ্খলা, অব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণ দুর্বলতার মধ্যেও বীমা খাতের ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা বাড়ছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সরকার বীমা শিল্পকে যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করার জন্য বিভিন্ন প্রশাসনিক ও আইনি সংস্কার সাধন করেছে। এসব সংস্কারের ফলে বীমা খাতে আগের চেয়ে অনেক বেশি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হয়েছে এবং বীমা সেবায় পেশাদারি বেড়েছে। এতে নতুন গ্রাহকরাও আকৃষ্ট হচ্ছেন।

জানা যায়, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত বীমা খাতে গ্রাহক সংখ্যার দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স। এ সময়ে কোম্পানিটির মোট গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৮ লাখে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মোট গ্রাহক সংখ্যা ৪২ লাখ। তৃতীয় অবস্থানে মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের গ্রাহক সংখ্যা ২৭ লাখ ১৯ হাজার। চতুর্থ স্থানে থাকা ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের গ্রাহক ২৬ লাখ। আর গ্রাহক সংখ্যার দিক থেকে পঞ্চম স্থানে রয়েছে ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স। ২০১৬ সাল শেষে কোম্পানিটির মোট গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ।

এছাড়া অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মোট গ্রাহক সংখ্যা ১৭ লাখ, সন্ধানী লাইফের ৭ লাখ, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ৮৭ হাজার, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৪ লাখ ৩২ হাজার, প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৪ লাখ ৭৭ হাজার, পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান জীবন বীমা করপোরেশনের মোট গ্রাহক সংখ্যা ৫ লাখ। এদিকে একমাত্র শতভাগ বিদেশি মালিকানাধীন মেটলাইফের মোট গ্রাহক সংখ্যা ২০১৬ সাল শেষে দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখে।

সংশ্লিষ্টদের মতে, বছরজুড়ে বীমা খাত নিয়ে নানা নেতিবাচক শিরোনাম থাকলেও সংস্কার আনতে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ আইডিআরএ। বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে কোম্পানিভেদে জরিমানা করেছে ৩ লাখ থেকে ৪৭ লাখ টাকা পর্যন্ত। মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগে অনিয়মের কারণেও বেশকিছু কোম্পানিকে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া বছরজুড়ে নিরীক্ষক নিয়োগ তো ছিলই। এতে কিছুটা হলেও শৃঙ্খলা ফিরেছে বীমা খাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here