চীনা কনসোর্টিয়ামকে সংশোধিত প্রস্তাবের সুযোগ দিলো বিএসইসি

0
363

স্টাফ রিপোর্টার: কৌশলগত বিনিয়োকারী হিসেবে সাংহাই ও শেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জের যৌথ কনসোর্টিয়ামকে সংশোধিত প্রস্তাব জমা দেওয়ার সুযোগ দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। কনসোর্টিয়ামটির কিছু শর্ত পুঁজিবাজারের স্বার্থ পরিপন্থী বলে মনে করছে বিএসইসি। তাই এসব শর্ত বাদ দিয়ে বিএসইসির দেওয়া শর্তসাপেক্ষে সংশোধনী প্রস্তাব জমা দেওয়ার সুযোগ দিয়েছে বিএসইসি।

নিচের শর্তগুলো পরিপালন করে সংশোধিত প্রস্তাব দিলে তা গ্রহণ করা যেতে পারে-

১। শেয়ার পারচেজ এগ্রিমেন্টে (এসপিএ) এমন কোনো শর্ত রাখা যাবে না যা স্থানীয় আইনের সাংঘর্ষিক। পাশাপাশি ডিএসইর সাধারণ শেয়ারহোল্ডার ও বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট উন্নয়নে বিরুদ্ধে না যায়।

২। এমন কোনো প্রস্তাব রাখা চলবে না যা পরিপালন করতে ডিএসইর বিদ্যমান মেমোরেন্ডাম এবং আর্টিকেলস অব অ্যাসোসিয়েশন সংশোধন করতে হয়।

৩। এসপিএসহ কৌশলগত ইস্যু চূড়ান্ত করে কমিশনে জমা দেওয়ার আগে ডিএসইর শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিতে হবে।

৪। কৌশলগত বিনিয়োগকারী ইস্যুতে গঠিত কমিটির প্রতিবেদন ডিএসইর সাধারণ সভায় উপস্থাপন করতে হবে।

৫। ডিএসইর সাধারণ সভার সিদ্ধান্তপত্র, এসপিএসহ কনসোর্টিয়ামের অন্যান্য কাগজাদি নিয়ে কমিশনে চূড়ান্ত আবেদন করতে হবে।

এর আগে গত ১৫ মার্চ বিএসইসির গঠিত পর্যালোচনা কমিটি তাদের প্রতিবেদন জমা দেয়।

উল্লেখ্য, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ডিএসই দুইটি প্রস্তাব পর্যালোচনা করে সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ এবং সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জকে নিয়ে গঠিত কনসোর্টিয়ামকে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে বেছে নেয়।

আর ১০ ফেব্রুয়ারি পরিচালনা পর্ষদের সভায় সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ এবং সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জকে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে পার্টনার করতে একমত পোষণ করেন। তবে ওই সময়ে তা আর প্রস্তাব আকারে বিএসইসিতে পাঠানো হয়নি।

এরপর নানা দিক থেকে অভিযোগ ওঠে যে, ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী নিয়ে অনিয়মের আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে। সেখানে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি ও ভারতীয় দরদাতা প্রতিষ্ঠান ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী নিতে অনৈতিক চাপ প্রয়োগ করছে বলে অভিযোগ তোলে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ এবং সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জকে নিয়ে গঠিত কনসোর্টিয়ামটি ডিএসইর পার্টনার হতে ২২ টাকা দরে ২৫ শতাংশ শেয়ার নিতে আবেদন করে। পাশাপাশি কনসোর্টিয়ামটি ৩৭ মিলিয়ন ডলারের প্রযুক্তিগত সহযোগিতা দেওয়ার প্রস্তাবও দেয় ডিএসইকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here