চমকে দেবে সাইফ পাওয়ার

0
5467

সিনিয়র রিপোর্টার : সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড রাইট শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ১৭৪ কোটি ৪৪ লাখ এবং প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে (আইপিও) ২০১৪ সালে ৩৬ কোটি টাকা ব্যবসা বৃদ্ধির কাজে সংগ্রহ করে। তবে নতুন করে রাইট শেয়ারের মাধ্যমে সংগৃহিত টাকা ব্যবহারে কোম্পানির উৎপাদন এবং মুনাফা বৃদ্ধির গতি বেড়েছে।

চলতি বছরের কোম্পানির মুনাফা ১০০ কোটি টাকা নির্ধারণ হলে অনেকাংশে সফল হয়েছে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে আয় বৃদ্ধির চিত্র ফুটে উঠেছে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ও সম্পদ মূল্যে (এনএভি)। তবে আয় বৃদ্ধির সেই ছাপ এখনো যুক্ত হয়নি কোম্পানির শেয়ারপ্রতি দরে।

ডিএসইর ওয়েবসাইট থেকে নেয়া আর্থিক চিত্র

বিক্রয় এবং আয় বৃদ্ধির পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, সাইফ পাওয়ারটেকের ৩ মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর ২০১৭) বিক্রয় বেড়েছে ১৩ শতাংশ। যার উপর ভিত্তি করে কোম্পানিটির নিট মুনাফা বেড়েছে ৬ শতাংশ হারে।

কোম্পানির অনিরীক্ষিত সমন্বিত আর্থিক হিসাব বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, প্রথম ৩ মাসে বিক্রয় হয়েছে ৮৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা। ঠিক আগের বছরে একই সময়ে হয়েছিল ৭৬ কোটি ১১ লাখ টাকা। সে হিসাবে বিক্রয় বেড়েছে ৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকার বা ১৩ শতাংশ। শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৭৫ পয়সা।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে বা ৬ মাসের চিত্রে দেখা গেছে, ৩ মাসে আয়ের দ্বিগুণ হয়েছে ৬মাসে। প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় দ্বিতীয় প্রান্তিকে বিক্রয় বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। মুনাফার বৃদ্ধিতে শেয়ার প্রতি আয় হয় ১ টাকা ১৮ পয়সা। ঠিক আগের বছরে একই সময়ে একই পরিমাণ ইপিএস ছিল।

ডিএসইর ওয়েবসাইট থেকে নেয়া আর্থিক চিত্র

মজার ব্যাপার হলো- মূল শেয়ারের সঙ্গে গত বছরে রাইট শেয়ারের মাধ্যমে নতুন করে ১১ কোটি ৬২ লাখ ৯৫ হাজার ৩৪৮টি শেয়ার যুক্ত হয়। পুঁজিবাজার থেকে ১৭৪ কোটি ৪৪ লাখ ৩০ হাজার ২২০ টাকা উত্তোলন করেছে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ। উত্তোলিত টাকায় গাজীপুরে ব্যাটারি প্রকল্পের কাজে ব্যয় করা হয়েছে। নতুন করে আরো বিপুল পরিমাণ শেয়ার যুক্ত হওয়ার পরেও আগের বছরের সমপরিমাণ ইপিএস হওয়া বিস্ময়কর।

ইতোমধ্যে চলতি বছরে কোম্পানির মুনাফা বৃদ্ধির লক্ষ্য নির্ধারিত হয়েছে শতকোটি টাকা।

সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেডের তৃতীয় প্রান্তিকে বা প্রথম ৯ মাসে বিক্রয় ও মুনাফা আরো অনেকগুণ বেড়েছে। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ বাড়ে। আমদানি করা পণ্য থেকে এ সময়ে তাদের আয় প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪৬ দশমিক ৭১ শতাংশ।

ডিএসই ওয়েবসাইট থেকে নেয়া

কোম্পানির শেয়ারপ্রতি মোট আয় গত বছরের তুলনায় বেড়ে হয়েছে ১ টাকা ৭৮ পয়সা। যা আগের আগের বছরে একই সময়ে ছিল ১ টাকা ৭৭ পয়সা। কোম্পানির উৎপাদনের ধাক্কা লেগেছে মুনাফায়।

২০১৪ সালের মাঝামাঝি সময়ে ব্যাটারি প্রকল্পের জন্য আইপিওর মাধ্যমে ৩৬ কোটি এবং ২০১৭ সালে রাইট শেয়ার ইস্যু করে আরো ১৭৪ কোটি ৪৪ লাখ ৩০ হাজার ২২০ টাকা মূলধন সংগ্রহ করে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ। গাজীপুরের পুবাইলে ব্যাটারি প্রকল্পের গত বছরের ৫ আগস্ট থেকে উৎপাদন শুরু হওয়ায় পণ্যের বিক্রয় এবং মুনাফার গতি বাড়তে থাকে।

কোম্পানির ওয়েবসাইট থেকে নেয়া (Consolidated Financial Statements (un-audited) for the period ended 3 1 March 2018) চিত্র

মুনাফা বৃদ্ধি সম্পর্কে কথা হলে সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেডের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা (সিএফও) হাসান রেজা বলেন, পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রথম সারির কোম্পানিরগুলোর মধ্যে সাইফ পাওয়ারটেক একটি। এখানে ব্যবস্থাপনা থেকে শুরু করে সবকিছু পরিকল্পিতভাবে করা হয়। তাই সবার চেষ্টায় কোম্পানির লক্ষ্যমাত্রা স্পর্ষ করার খুবই চেষ্টা চলছে।

‘আমরা বিনিয়োগকারীদের আস্থার প্রতিফলন রাখতে চাই। আমাদের উৎপাদন ও বিপণন বাড়তে থাকায় মুনাফাও বেড়েছে। একইসঙ্গে কোম্পানির পরিচালন ব্যয়ও অনেক বেড়েছে’- বলেন হাসান রেজা।

‘আমাদের পরিচালনা পর্ষদ খুবই দক্ষ। তারা চান কোম্পানিটিকে আরো অনেক দূর এগিয়ে নিতে। বিধিসম্মতভাবে এবং যথাসময়ে কোম্পানির বোর্ডসভা হবে’ বলে জানান তিনি।

এদিকে চট্টগ্রাম বন্দরের নিউমুরিং কন্টেইনার টার্মিনালের (এনসিটি) ৪টি জেটিতে কনটেইনার ওঠানো-নামানোর কাজ, কমলাপুর আইসিডির রক্ষণাবেক্ষণ ও কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ের দায়িত্ব নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের (চবক) সঙ্গে আরেকটি চুক্তি হওয়ায় সম্ভাবনা আরো বেড়েছে।

সেবা ও নির্মাণ খাতের কোম্পানিটি বাস, ট্রাক, মোটরগাড়ি ও আইপিএসের জন্য ব্যাটারি উৎপাদন করছে। একই সঙ্গে আরো নতুন ব্যবসার চালু করতে যাচ্ছে কোম্পানির কর্তৃপক্ষ। তবে পরিকল্পনায় কি পরিবর্তন আনা হয়েছে তা এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

ডিএসই ওয়েবসাইট থেকে নেয়া

গত বছরের ২৯ অক্টোবর কোম্পানির পরিচালনা পরিষদ মোট (২৮ শতাংশ সাধারণ বিনিয়োগকারী ও ৫ শতাংশ উদ্যোক্তা) ৩৩ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। মুনাফা বৃদ্ধির গতি হিসেবে চলতি বছরেও সন্তোসজনক লভ্যাংশ ঘোষণার সম্ভাবনা মিলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here