ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ব্যাংক সেক্টর

0
1438

মেহেদী আরাফাত : মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ এর – ডিএসই এক্স ইনডেক্স দিনের প্রথম ভাগে ক্রয়চাপের ফলে কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবনতা লক্ষ্য করা যায় এবং পরবর্তীতে দিনভর কিছুটা মিশ্র প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়, দিনের শেষভাগে পুনরায় বিক্রয় চাপের ফলে দিনশেষে ডিএসই এক্স ইনডেক্স নিন্মমুখি হতে থাকে এবং ১০.১৩ পয়েন্ট হ্রাস পেয়ে বিয়ারিশ ক্যান্ডেলস্টিক তৈরি করে। বিয়ারিশ ক্যান্ডেলস্টিক সাধারণত বাজারের ক্রেতার থেকে বিক্রেতার চাপ বেশী নির্দেশ করে থাকে। বাজারের ক্রেতার থেকে বিক্রেতার চাপ বেশী থাকলেও লেনদেন তুলনামূলক কম হাওয়াই ধারনা কারা হয় এই অবস্থানে বিক্রেতার চাপ ধীরে ধীরে কমে আসছে । আর এটা বাজারের জন্য ভাল । ডিএসই এক্স ইনডেক্স ১০.১৩ পয়েন্ট হ্রাস পেয়ে ৪৮৫৬.৯৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে, যা আগের দিনের তুলনায় .২০% হ্রাস পেয়েছে।

পতনের বাজারে ব্যাংক সেক্টর এর লেনদেন ছিল চোখে পরার মত। স্টকবাংলাদেশ এর মার্কেট ফ্রেম দেখলে, দেখা যায়ে অন্যান্য সেক্টর এ শেয়ারের দাম কমলেও ব্যাংক সেক্টর এর অধিকাংশ শেয়ারের দাম বেড়েছে। ইপিএস ভাল থাকাএ বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেশী ছিল ব্র্যাক ব্যাংক এর দিকে।  ব্যাংক সেক্টর যদি এই পজিটিভ মুভমেন্ট ধরে রাখতে পারে তাহলে মার্কেট যে কনও সময়ে ঘুরে যেতে পারে। সবকিছুর পরেও রাজনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি প্রয়োজন।

বর্তমানে ডিএসইএক্স ইনডেক্স এর পরবর্তী সাপোর্ট ৪৮০০ পয়েন্টে এবং রেজিটেন্স ৫০০০  পয়েন্টে অবস্থান করছে। আজ বাজারে এম.এফ.আই এর মান ছিল  ৩৮.৩৯ এবং আল্টিমেট অক্সিলেটরের মান ছিল ৪১.৯৯। এম.এফ.আই এবং আল্টিমেট অক্সিলেটর নিন্মমুখি আবস্থান করছে।

ডিএসইতে  কোটি ৯১ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৭  টি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড লেনদেন হয়, যার মূল্য ছিল ২৪৭.১৭  কোটি টাকা। ডিএসইতে লেনদেন হ্রাস  পেয়েছে ৩৭ কোটি টাকা।ঢাকা শেয়ারবাজারে ৩১০ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে, যার মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৯ টির, কমেছে ১৮৭ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৪ টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।Screenshot_1

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, আজ বাজারে চাহিদা বেশি ছিল ৩০০ কোটি টাকার ওপরে পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগেরদিনের তুলনায় .৭৯% বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্যদিকে হ্রাস পেয়েছে ০-২০, ২০-৫০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের  যা আগেরদিনের তুলনায় ২৬.৩৬% এবং ১৫.১৬% কম। অন্যদিকে ৫০-১০০ এবং ১০০-৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মুলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমান গতকালের তুলনায় যথাক্রমে আজ ৩৩.৭৭% এবং ৩.৭২% হ্রাস পেয়েছে।

পিই রেশিও ২০-৪০ এর  মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায়  ২৫.৩১% হ্রাস পেয়েছে। হ্রাস পেয়েছে  পিই রেশিও ০-২০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন যার পরিমান আগের দিনের তুলনায়  ৫.৫২% কম ছিল। অন্যদিকে পিই রেশিও  ৪০ এর ওপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন  আগের দিনের তুলনায়  ২৫.৫৫% হ্রাস  পেয়েছে।

ক্যাটাগরির দিক থেকে আজ বেশী হ্রাস পেয়েছে ‘এন’ এবং ‘বি’ ‘ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় যথাক্রমে ৫৩.২৭% এবং ৩৪.৯০% কম ছিল। আজ হ্রাস পেয়েছে ‘এ’, ‘জেড’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন যা আগেরদিনের তুলনায় যথাক্রমে ৬.২৪% এবং ১৬.৯১% কম ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here