গ্যাস সংযোগ পেলেই এ্যাপোলো ইস্পাতের নতুন প্রকল্পে উৎপাদন

0
643

ডেস্ক রিপোর্ট : গ্যাস সংযোগ পাওয়া মাত্রই নফ প্রকল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন এ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আনসার আলী। রাজধানীর তেজগাঁওয়ে শনিবার কোম্পানির ২৩তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) তিনি একথা বলেন।

তেজগাঁওয়ে শনিবার কোম্পানির ২৩তম বার্ষিক সাধারণ সভা

এজিএমে সভাপতিত্ব করেন এ্যাপোলো ইস্পাত কমপ্লেক্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান দীন মোহাম্মদ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির পরিচাক এম.এ মজিদ, মো. রফিক, স্বতন্ত্র পরিচালক মো. আবু কায়সার, কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আবুল হাসান এবং কোম্পানি সচিব মো. সোহেল আমীন প্রমুখ।

মো. আনসার আলী বলেন, প্রতিকুলতা সত্ত্বেও আমরা বিক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পেরেছি এবং আশা করছি দ্রুতই কোম্পানি আরও ভালো অবস্থানে দাঁড়াবে। বাজারে দ্রুত বর্ধনশীল বৈচিত্র ও পছন্দের কারনে অগ্রণী ব্র্যান্ডের ভূমিকা বৃদ্ধি পেয়েছে, যার সাথে পণ্য এবং গুনগত সেবা মানের গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যমান।

তিনি বলেন, আগামী দিনগুলোতে রানী মার্কাকে আরও শক্তিশালী করতে কোম্পানি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। এছাড়াও সম্ভাব্য ক্রেতাদের নিকট ব্র্যান্ডের পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা বাড়ানোর জন্য বিজ্ঞাপন ও প্রচারনা মূলক নানা কর্মসূচী আমরা গ্রহন করছি।

তিনি বলেন, অত্যাধুনিক আরটিএফ প্রযুক্তির নফ প্রকল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদনের সকল প্রতিবন্ধকতা সমূহ আমরা দূর করতে সমর্থ হয়েছি। ইতিমধ্যে প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনীয় গ্যাস সংযোগের অনুমোদন পাওয়া গেছে। গ্যাস সংযোগ পাওয়া মাত্রই নফ প্রকল্পের বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করা হবে।

সভাপতির বক্তব্যে কোম্পানির চেয়ারম্যান দীন মোহাম্মদ বলেন, আলোচ্য অর্থবছরে মোট বিক্রয় ৫৩০.৬৩ কোটি টাকা থেকে ৫৭১.৪৩ কোটি হলেও কর পরবর্তী নীট মুনাফা ৭৫.৩৪ কোটি টাকা থেকে ৪৭.৭৮ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। তা সত্বেও পরিচালনা পর্ষদ ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ সুপারিশ করেছেন।

দীন মোহাম্মদ আরও বলেন, বিভিন্ন রকমের প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও আমরা পণ্যের নতুন বাজার সৃষ্টি, ব্যবহারের বৈচিত্র্য আনছি। আমরা দেশের সীমানা পেরিয়ে রপ্তানীর মাধ্যমে বাজার সম্প্রসারণের প্রচেষ্টা অব্যহত রেখেছি। আমি বিশ্বাস করি অতীতের মত শেয়ার হোল্ডারদের স্বার্থ সবসময় অক্ষুন্ন রাখতে পারব।

তিনি বলেন, ক্রমবর্ধমান রঙ্গিন ঢেউটিন ও প্রোফাইল শিটের বাজারে সাড়া দিতে ব্যাপক পরিসরে উন্নত মানের রানী মার্কা গ্যালভালুম, রঙ্গিন ঢেউটিন, প্রোফাইল শিট ইত্যাদি আমাদের পণ্যের তালিকায় সংযোজনের বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে। এই পণ্য সংযোজনের মাধ্যমে রানী মার্কা এক অনন্য উচ্চতায় পৌঁছাবে বলে মনে করেন তিনি।

সাধারণ সভায় ৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত অর্থবছরের জন্য ঘোষিত ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন করে শেয়ারহোল্ডারা। এছাড়া কোম্পানির আয়-ব্যয় সম্পর্কিত আর্থিক বিবরনী ও এর উপর নিরীক্ষকের প্রতিবেদন সহপরিচালক মন্ডলীর প্রতিবেদন অনুমোদন দেওয়া হয়।

এদিকে ২৩তম সাধারণ সভায় অবসরে যাওয়ায় কোম্পানির পরিচালক আবদুর রহমান, মোঃ রফিক,  মিসেস রোকসানা বেগম এবং মিসেস ইভানা ফাহমিদা মোহাম্মদ পরিচালক পদে পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন।

সভায় পরবর্তি বছরের (২০১৭-১৮ অর্থবছর) জন্য মেসার্স মালেক সিদ্দিকি ওয়ালী চার্টার্ড একাউন্টসকে নিরিক্ষক হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here