ইমরান হোসেন: মোঃ আল-আমিন সরকার, একজন সাধারণ বিনিয়োগকারী। শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করছেন ২০১০ সাল থেকে। শেয়ার বাজারের উত্থান-পতনটা দেখেছেন কাছ থেকে। কখন বিনিয়োগ করে লাভ করেছেন- আবার লসও দিয়েছেন,পুনঃরায় সে লস কাভার করতে সক্ষমও হয়েছেন। স্টক বাংলাদেশের বিনিয়োগকারী সাক্ষাৎকার বিভাগে জানালেন তাঁর অভিঙ্গতা।

গল্প শুনতাম শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করে দ্রুত বড়লোক হওয়া যায়। সেই আকর্ষণ থেকে শেয়ার বাজারে জড়িয়ে পড়া। বিশেষ করে আমার এক ঘনিষ্ট বন্ধু কথায় এ পথে পা বাড়াই। প্রথম দিকে আইপিও করতাম কারণ বন্ধুটি বলত আগে আইপিও করে হাত পাকা, তার পরে সেকেন্ডারি মার্কেটে নামিস।

আইপিও করতে করতে আর মানুষের শেয়ার বাজার থেকে টাকা কামানোর গল্প শুনতে শুনতে একটা সময় প্রলুব্ধ হলাম । মনে হলো বড় লোক হতে হলে রিস্ক আমাকে নিতেই হবে। ঢুকে পড়লাম সেকেন্ডারি মার্কেটে। তখন শেয়ার মার্কেটের রমরমা অবস্থা। শেয়ার কিনলেই লাভ। আর কেউ একটু চালাক চতুর হলেই অনেক টাকা প্রফিট করতে পারত।

এমনও হয়েছে কোম্পানি কোথায়? কী উৎপাদন করে কিছুই জানিনা । কিন্তু অন্যের কথায়, ঐ কোম্পানির শেয়ার কিনেছি । আবার লাভও হয়েছে। কিন্তু ঐ লাভের, লোভে যে একদিন মূলধণ ক্ষয় হবে কে জানতো।
দেখতে দেখতে ৬ বছর সময় পার করলাম শেয়ার মার্কেটে। শেয়ার বাজারের উত্থান-পতনটা দেখেছি কাছ থেকে।

প্রথমে বেশ লাভ করলেও ,ধ্বসের সময় চোখের সামনে মূলধন ক্ষয় হতে থাকে। আশায় বুকবাধি ঠিক হয়ে যাবে কিন্তু আর ঠিক হয় না বরং লচের পাল্লা বাড়তে থাকায় রাগে, ক্ষোভে, দুঃখে শেয়ার বিরাট লচে সেল করে বের হয়ে আসি।

কিন্তু শেয়ার মার্কেট ছেড়ে যাইনি। হারান টাকা তুলতে হবে ,বড় ক্ষতির অভিঙ্গতা কাজে লাগিয়ে । সেই ইচ্ছা থেকে শুরু করি শেয়ার মার্কেট নিয়ে কিছু পড়াশুনা ,বুঝার চেস্টা করি মার্কেটের গতি। ধারণা নেই টেকনিক্যাল ও ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিসের । ফলে গ্যাম্বেলার দের ফাঁদে পা দেই না। তাদের ফাঁদে পড়ে আর লস দিতে হয় না।

যে কোম্পানির ব্যবসা ভাল না ,ব্যালেন্স শীটের অবস্থা খারাপ ,সেই কোম্পানির শেয়ারের দাম কিভাবে, কেন বাড়ে বুঝতে সমস্যা হয় না। একটা সময় লক্ষ্য করলাম শেয়ার মার্কেটে আমার নির্ভরতা চলে আসে ।

আমি শেয়ার মার্কেটে এখন বিনিয়োগ করছি, অনেক কিছু ভেবে চিনতে কোম্পানির ব্যবসা, ব্যাবস্থাপনা কর্তৃপক্ষে কারা আছেন,পরিচালনা পর্ষদে কারা আছেন? ইপিএস, পিই, ন্যাভ, ডিভিডেন্ড ঈল্ড,ইত্যাদি খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখে বিশ্লেষণ করে ।

1 COMMENT

AL amin শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন Cancel reply

Please enter your comment!
Please enter your name here