গাড়ি উৎপাদন করবে এসিআই

0
476

স্টাফ রিপোর্টার : জাপানি মোটরসাইকেল জায়ান্ট ইয়ামাহার মোটরসাইকেল সংযোজনের জন্য দেশে একটি অ্যাসেম্বলিং প্লান্ট স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের (এসিআই) সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান এসিআই মোটরস লিমিটেড। গাজীপুরে নির্মিতব্য প্লান্টে বছরে ৫০ হাজার ইয়ামাহা মোটরসাইকেল সংযোজন করবে প্রতিষ্ঠানটি।

বার্ষিক রেভিনিউ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫০০ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার এসিআইয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভায় ইয়ামাহা মোটর কোম্পানি লিমিটেড জাপানের সঙ্গে নিজেদের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানের চুক্তি স্বাক্ষরের পরিকল্পনাটি অনুমোদন হয়েছে। এসিআই মোটরসের ৬৭ দশমিক ৫০ শতাংশ শেয়ারের মালিক এসিআই লিমিটেড।

কোম্পানির কর্মকর্তারা বলছেন, দেশের তরুণদের মধ্যে বিশ্বমানের ইয়ামাহা মোটরসাইকেলের চাহিদা বেশ। এসিআই মোটরস ২০১৬ সাল থেকে এসব মোটরসাইকেলের একমাত্র পরিবেশক হিসেবে কাজ করছিল। স্থানীয় প্লান্টে মূল্য সংযোজন বাড়লে এগুলোর দাম আরো কমিয়ে আনা যাবে। এজন্য প্রাথমিক ধাপে সংযোজন প্লান্ট স্থাপন করা হবে। পর্যায়ক্রমে মূল্য সংযোজন বাড়াতে ম্যানুফ্যাকচারিংয়েরও পরিকল্পনা রয়েছে কোম্পানিটির।

ইয়ামাহার সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনার পরই মূল কোম্পানির পর্ষদে চুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। চুক্তি স্বাক্ষরের পরই সিকিডি অ্যাসেম্বলিং (সম্পূর্ণ বিযুক্ত অবস্থায় আমদানি করা যন্ত্রাংশ সংযোজন) প্লান্ট স্থাপনের কাজ শুরু করবে কোম্পানি। সরকারের নীতি সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে যত দ্রুত সম্ভব সংযোজন প্রক্রিয়াও শুরু করবে এসিআই মোটরস।

এসিআই মোটরসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. ফা হ আনসারী বলেন, দেশে সংযোজন কারখানা স্থাপনে ইয়ামাহার সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। চলতি বা আগামী মাসের একটি ভালো সময়ে চুক্তি স্বাক্ষর হবে।

গাজীপুরে কারখানা স্থাপনের জন্য জমি চূড়ান্ত হয়েছে। চুক্তি স্বাক্ষরের পর প্লান্টের কাজ শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে বছরে ৫০ হাজার ইউনিট মোটরসাইকেল সংযোজনের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। স্থানীয় বাজারের কথা মাথায় রেখে এ প্লান্টে অনূর্ধ্ব ১৬৫ সিসি পর্যন্ত বিভিন্ন মডেলের মোটরসাইকেল সংযোজন করা হবে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে একমাত্র পরিবেশক হিসেবে এসিআই মোটরস দেশের বাজারে ইয়ামাহা ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল বিপণন করছে। সংশ্লিষ্ট যন্ত্রাংশ বিক্রি ও বিক্রয়োত্তর সেবাও দিচ্ছে কোম্পানিটি। তিন বছর মেয়াদি পরিবেশক চুক্তির আওতায় ২০১৬ সালের আগস্ট থেকে ১০০ সিসি থেকে ১৫৫ সিসি পর্যন্ত বিভিন্ন মডেলের ইয়ামাহা মোটরসাইকেল বিপণন শুরু করে এসিআই মোটরস। দেশের বিভিন্ন স্থানে ইয়ামাহার শোরুম ও সার্ভিস নেটওয়ার্কও স্থাপন করেছে কোম্পানিটি।

২০০৭ সালে সোনালিকা ব্র্যান্ডের ট্রাক্টর বিপণনের মাধ্যমে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করে এসিআই মোটরস। পর্যায়ক্রমে পাওয়ার টিলার, ডিজেল ইঞ্জিন, কম্বাইন্ড হারভেস্টার, রাইস ট্রান্সপ্ল্যান্টার, নিজস্ব ব্র্যান্ডের পানির পাম্প, রিপার ছাড়াও বিভিন্ন কনস্ট্রাকশন ইকুইপমেন্ট বিপণন শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।

মূল কোম্পানি এসিআই লিমিটেড ১৯৭৬ সালে শেয়ারবাজারে আসে। বর্তমানে এ কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ৫০ কোটি ও পরিশোধিত মূলধন ৪৮ কোটি ২০ লাখ ২০ হাজার টাকা। রিজার্ভ রয়েছে ৯৫৯ কোটি ৯ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৪৪ দশমিক ৩০ শতাংশ এর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে, প্রতিষ্ঠান ২৮ দশমিক ৭৯ ও বাকি ২৬ দশমিক ৬৯১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সর্বশেষ ৩৯৬ টাকায় এসিআই লিমিটেডের শেয়ার হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বোচ্চ দর ছিল ৬৩৮ টাকা ৪০ পয়সা ও সর্বনিম্ন দর ৩৮২ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here