‘ক্যাপিটাল মার্কেট কেস কম্পিটিশন’ উদ্বোধন

0
212

স্টাফ রিপোর্টার : আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাপিটালৈ মার্কেট কেস কম্পিটিশন শনিবার সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের মাল্টিপারপাস হলরুমে সকালে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. এম. খায়রুল হোসেন।

উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, বর্তমান প্রবৃদ্ধির ধারা বজায় থাকলে আগামী নয় বছরে দেশের অর্থনীতির আকার দ্বিগুণ হবে। ব্যাপক এ উন্নয়নযজ্ঞে অর্থসংস্থানে পুঁজিবাজার একটি বড় ভূমিকা রাখবে। জিডিপির সঙ্গে এগোতে হলে আমাদের পুঁজিবাজারে নতুন নতুন প্রডাক্ট, শিক্ষিত ও সচেতন বিনিয়োগকারী এবং বাজারসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোয় অনেক দক্ষ বিনিয়োগ পেশাদার প্রয়োজন হবে। আজকের শিক্ষার্থীরাই সে বাজারে নেতৃত্ব দেবে, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম) যাদের গড়ে তোলার দায়িত্ব পালন করছে।

দেশে প্রথমবারের মতো ‘Invest Maestros: Season-1’ নামে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক Capital Market Case Competition শুরু করেছে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম)।

বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের দেশব্যাপী বিনিয়োগ শিক্ষার প্রসার ও ফ্রেশ গ্র্যাজুয়েটদের প্রায়োগিক জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি কার্যক্রমের অংশ হিসেবে প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষণার সময় ইনভেস্ট মায়েস্ত্রোজ সিজন ওয়ানে অংশগ্রহণকারী বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের টিমগুলোকে অভিনন্দন জানিয়ে বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, বিনিয়োগ ও পুঁজিবাজার সম্পর্কে তাদের আগ্রহ অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক। আজকের এ শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকেই আগামীর দক্ষ নেতৃত্ব উঠে আসবে। তারাই আগামীর পুঁজিবাজারকে এগিয়ে নেবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বিআইসিএমের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জোয়ারদার বলেন, মেধাবী তরুণরা পুঁজিবাজার নিয়ে আগ্রহী হলে এ বাজার আরো সমৃদ্ধ হবে। বিআইসিএম আগ্রহী তরুণদের জন্য পুঁজিবাজার ও বিনিয়োগ সম্পর্কে বিশেষায়িত শিক্ষার সুযোগ করে দিয়েছে।

বর্তমানে বিনামূল্যে একদিনের বিনিয়োগ শিক্ষা কর্মসূচি ছাড়াও পুঁজিবাজার সম্পর্কিত বিভিন্ন সার্টিফিকেট প্রোগ্রাম, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা কোর্স পরিচালনা করছে ইনস্টিটিউট। বিনিয়োগ সম্পর্কে সচেতনতা ও জ্ঞানের প্রসারে অনেক সেমিনার ও কর্মশালাও আয়োজন করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে এ ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম আরো বিস্তৃত হবে এবং এটি পুঁজিবাজারবিষয়ক জ্ঞান চর্চার আঞ্চলিক কেন্দ্রে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বিভিন্ন বিশ্বাবদ্যালয় থেকে অনলাইন রাউন্ডে নির্বাচিত ৩০ টিমকে নিয়ে শুরু হয়েছে প্রতিযোগিতাটির সেমিফাইনাল রাউন্ড। এখান থেকে ফাইনালের জন্য ৮টি টিমকে নির্বাচন করা হবে।

বিজয়ীদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার। থাকছে সর্বমোট ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। চ্যাম্পিয়ান টিম পাবে নগদ ১ লাখ, ১ম রানার্স আপ পাবে ৫০ হাজার এবং ২য় রানার্স আপ পাবে ৩০ হাজার টাকা।

প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ অক্টোবর।

ঢাকার বাইরে থেকে সেমিফাইনাল রাউন্ডে আসা টিমের সদস্যদের যাতায়াত খরচ বহন করবেন আয়োজকরা। প্রতিযোগিতার অংশ হিসেবে ১২ ও ১৪ অক্টোবর দুটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। সেমিফাইনাল ও ফাইনাল হবে ১৩ ও ১৫ অক্টোবর। ১৬ অক্টোবর গালা ডিনার ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হবে ইনভেস্ট মায়েস্ত্রোজ সিজন ওয়ান।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত বিআইসিএম দেশব্যাপী বিনিয়োগশিক্ষার প্রসার ও পুঁজিবাজারের জন্য দক্ষ প্রফেশনাল তৈরির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। বিনিয়োগ সম্পর্কিত তাত্ত্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি প্রশিক্ষণার্থীদের ব্যবহারিক দক্ষতা বাড়াতেও সহায়ক ভূমিকা রাখছে তাদের স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি কোর্সগুলো।

ইনভেস্ট মায়েস্ত্রোজ সিজন ওয়ানের সহআয়োজক ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড।

আয়োজনের সাথে রয়েছে দৈনিক প্রথম আলো। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে এটিএন বাংলা, দি ফাইন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বণিক বার্তা, রেডিও টুডে, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here