কপারটেক ও এসিআই বিষয়ে বিএসইসিতে চিঠি যাচ্ছে বুধবার

0
239

স্টাফ রিপোর্টার : নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের তালিকাভুক্তি ও এসিআই লিমিটেডের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সিদ্ধান্ত চেয়ে বুধবার, ২৯ মে চিঠি পাঠাতে পারে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সুত্রে জানা যায়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালনা পর্ষদের সর্বশেষ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কপারটেক ও এসিআই এর বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে চিঠির খসড়া তৈরি করেছে ডিএসইর ম্যানেজমেন্ট। মঙ্গলবার, ২৮ মে দুপুরে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে ডিএসইর পর্ষদ সভার বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদনের পর বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে এ চিঠি পাঠানো হতে পারে বিএসইসিতে।

উল্লেখ্, পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির অপেক্ষায় থাকা বহুল আলোচিত কোম্পানি কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের বিরুদ্ধে হিসাবকারসাজি ও আর্থিক প্রতিবেদনে গোঁজামিল দেওয়ার অভিযোগ তুলেছিল ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন (ডিবিএ)। এ নিয়ে গণমাধ্যমে বেশ কিছু প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে

এর প্রেক্ষিতে গত ৯ মে অনুষ্ঠিত ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের বৈঠক থেকে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে কপারটেকের আর্থিক প্রতিবেদন খতিয়ে দেখে তা পর্ষদকে বিস্তারিতভাবে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। ডিএসইর ম্যানেজমেন্টও তাদের প্রতিবেদনে কপারটেকের আর্থিক প্রতিবেদনে ভয়ানক অসঙ্গতি আছে বলে জানায়।

তবে কপারটেক কর্তৃপক্ষ শুরু থেকেই অনিয়ম, হিসাবকারসাজির অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। তাদের দাবি, আর্থিক প্রতিবেদনের কিছু তথ্য ভুলভাবে বিশ্লেষণ করার কারণে তা কারো কারো কাছে অসামঞ্জস্যপূর্ণ মনে হচ্ছে।

অন্যদিকে কপারটেকের আর্থিক প্রতিবেদন নিয়ে নানা মহল থেকে প্রশ্ন তোলায় ফিন্যান্সিয়াল রিপোটিং কাউন্সিল (এফআরসি) নিরীক্ষক ও নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠান তথা চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টদের (Chartered Accountant) প্রাইমারি রেগুলেটর আইসিএবি’কে বিষয়টি খতিয়ে দেখে রিপোর্ট দিতে বলে। এর প্রেক্ষিতে আইসিএবি কোম্পানিটির নিরীক্ষক আহমেদ অ্যান্ড আখতার চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টসকে নিরীক্ষা সংক্রান্ত নথিপত্র পাঠানোর জন্য চিঠি দেয়।

কিন্তু  তারা এ বিষয়ে কোনো সহযোগিতা করছে না বলে এক চিঠিতে এফআরসি’কে জানিয়ে দেয়। যদিও নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানটি অসহযোগিতার অভিযোগ অস্বীকার করেছে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, তাদেরকে খুবই কম সময় দেওয়া হয়েছিল এবং তাদের পার্টনার দেশের বাইরে থাকায় বাড়তি সময় প্রয়োজন বলে আইসিএবিকে জানিয়েছিল।

সব কিছু বিবেচনায় নিয়ে গত ২৩ মে অনুষ্ঠিত ডিএসইর পর্ষদ সভায় কপারটেকের তালিকাভুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্তের বিষয়টি বিএসইসির উপর ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ বিষয়ে বিএসইসির কাছে চিঠি পাঠাতে ম্যানেজমেন্টকে নির্দেশ দেওয়া হয়। এই চিঠিতে ম্যানেজমেন্টের তদন্তে পাওয়া অনিয়ম, এফআরসির উদ্যোগ, আইসিএবির অভিযোগসহ সব বিষয় উল্লেখ করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

অপরদিকে এসিআই তার সাবসিডিয়ারি কোম্পানি এসিআই লজিস্টিক স্বপ্নের নামে অর্থ দুর্নীতি করছে বলে অভিযোগ তুলে ধরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ব্রোকার্স এসোসিয়েশন(ডিবিএ)। সেই অভিযোগের সত্যতাসহ আরও অনিয়ম খুজে পায় ডিএসইর তদন্ত কমিটি। তাই এসিআই এর এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ বিএসইসিকে পরামর্শ দিয়ে চিঠি পাঠাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here