এ্যাস্কয়ার নিটের আইপিও আবেদন শিগগিরই

0
2292

সিনিয়র রিপোর্টার : প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অংশ হিসেবে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করবে এ্যাস্কয়ার নিট কম্পোজিট লিমিটেড। আইপিওর মাধ্যমে বাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করতে সম্প্রতি অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

তবে আইপিও আবেদনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করতে একটু বিলম্ব হবে। কোম্পানির কিছু প্রতিবেদন প্রকাশ শেষে, তবে শিগিগিরই তারিখ বিনিয়োগকারীদের জানানো হবে। এসব কথা বলেন কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিডের সিইও ড. মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, এ্যাস্কয়ার  নিট কম্পোজিট অনেক ভালো কোম্পানি। আয়ের চিত্রও অনেক ভালো। কমিশনের কিছু কাজ সম্পন্ন হলে আইপিও আবেদনের দিনক্ষণ শিগগিরই জানানো হবে।

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত অন্যান্য কোম্পানির সঙ্গে তুলনামূলকভাবে মূল্যায়নে এ্যাস্কয়ার নিট কোম্পানির ভবিষ্যৎ নিয়ে তিনি অনেক আশাবাদী। কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পারিষদ স্বচ্ছ বলে জানান ড. মোশাররফ হোসেন।

‘দ্রুত কার্যক্রম এগিয়ে নেয়া হচ্ছে’ বলেন এ্যাস্কয়ার নিট কম্পোজিট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এম মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি স্টক বাংলাদেশকে বলেন, আমরা সবে মাত্র অনুমোদন পেয়েছি। আবেদনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি জানাবে। তবে তার আগে ডিএসই-সিএই তাদের কিছু কার্যক্রম শেষ করবে। সব মিলে কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে।

তবে আগামী মার্চ মাসে আইপিও আবেদন শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে অনেকে আভাস দেন।

এ্যাস্কয়ার নিট আইপিওর মাধ্যমে সংগ্রহ করা ১৫০ কোটি টাকায় ব্যবসা সম্প্রসারণ, ভবন নিমার্ণ, ডাইং ও ওয়াশিং প্লান্টের জন্য যন্ত্রপাতি কিনবে। কোম্পানির উৎপাদন ও আয় বৃদ্ধিতে ব্যয় করা হবে।

ভালুকাতে দ্বিতীয় ইউনিট : বর্তমানে কোম্পানিটি কাঁচপুরে উৎপাদন কার্যক্রম চলছে। ব্যবসা আরও সম্প্রসারণ করার উদ্দেশ্য নিয়ে পুঁজিবাজার থেকে টাকা উত্তোলন করছে। সংগৃহিত টাকায় ময়মনসিংহের ভালুকাতে দ্বিতীয় ইউনিট চালু করবে এ্যাস্কয়ার নিট কম্পোজিট। (কোম্পানির ওয়েবসাইট দেখুন)

৩০ জুন, ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় বা ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৫২ পয়সা। আলোচ্য বছরে কোম্পানির সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন পরবর্তী শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) ছিল ৪৫ টাকা ৮৩ পয়সা। আর পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া এনএভি ২৫ টাকা ৯৬ পয়সা।

উল্লেখ্য, ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং রেজিস্ট্রার টু দ্য ইস্যুর দায়িত্বে রয়েছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here