এমএল ডাইংয়ের ২৫ লাখ শেয়ার মঙ্গলবার লক-ইন ফ্রি

0
125

স্টাফ রিপোর্টার : এমএল ডাইংয়ের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ২৫ লাখ শেয়ার লক-ইন ফ্রি হচ্ছে আগামী মঙ্গলবার, ১২ মার্চ। এটা দ্বিতীয় ধাপে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ২৫ শতাংশ শেয়ার লক-ইন ফ্রি হবে।

কোম্পানিটির আইপিও প্রসপেক্টাস ইস্যু হয় ২০১৮ সালের ১২ জুন। মোট শেয়ার সংখ্যা ছিল ২ কোটি। তাতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মোট শেয়ার ছিল ১ কোটি। স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানিটির লেনদেন শুরু হয় ১৭ সেপ্টেম্বর।

লেনদেনের প্রথম দিনে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ৫০ শতাংশ শেয়ার ফ্রি থাকে। বাকি ৫০ শতাংশের মধ্যে ২৫ শতাংশের ওপর ৬ মাস এবং ২৫ শতাংশ বা ২৭ লাখ ৫০ হাজার শেয়ারের ওপর ৯ মাসের লক-ইন থাকে। যার মেয়াদ শেষ হবে আগামী মঙ্গলবার।

পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজারে আসা কোম্পানিতে বিনিয়োগ করা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ শেয়ারের ওপর কোনো ধরণের লক-ইন থাকে না। আর অবশিষ্ট ৫০ শতাংশ শেয়ারের মধ্যে ২৫ শতাংশের ওপর ৬ মাস এবং বাকি ২৫ শতাংশের ওপর ৯ মাসের লক ইন থাকে। প্রসপেক্টাস ইস্যুর তারিখ থেকে লক-ইন হিসাব করা হয়।

৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে এমএল ডাইংয়ের পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ২০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর পুরোটাই বোনাস লভ্যাংশ। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৩৫ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৫ টাকা ৬ পয়সা।

আর দ্বিতীয় প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৬৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে আয় ছিল ৫৯ পয়সা। এদিকে শেষ ৩ মাসে (অক্টোবর-ডিসেম্বর,১৮) কোম্পানির আয় হয়েছে ৩৪ পয়সা। আগের বছর একই সময় আয় ছিল ৩০ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর শেষে শেয়ার প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৯ টাকা ৯২ পয়সা।

২০১৮ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির মোট শেয়ারের ৩১.৪০ শতাংশই রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে। বাকি শেয়ারের ২৩.৪১ শতাংশ রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২১.৮৯ শতাংশ, আর ২২.৮০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here